শুক্রবার, ২৪ মে ২০২৪ খ্রীষ্টাব্দ | ১০ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ



                    চাইলে বিজ্ঞাপন দিতে পারেন

কাতার থেকে লাশ হয়ে ফিরলেন বড়লেখার এখলাছ



বিজ্ঞাপন

এ.জে লাভলু:: স্বজনদের মুখে হাসি ফুটাতেই কয়েক বছর আগে প্রবাসে পাড়ি দিয়েছিলেন এখলাছ আহমদ (৪৩)। কথা ছিলো চলতি বছরের রোজার ঈদের পর তিনি দেশে ফিরবেন। তবে এর আগেই তিনি দেশে ফিরেছেন, জীবিত নয়, লাশ হয়ে।

কাতারে ব্রেইন স্ট্রোকে আক্রান্ত হয়ে মারা যাওয়ার দুদিন পর দেশে পৌঁছেছে মৌলভীবাজারের বড়লেখার এখলাছ উদ্দিনের মরদেহ। মঙ্গলবার (২১ মার্চ) রাত আটটার দিকে ঢাকার হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে তার লাশ এসে পৌঁছায়। সেখান থেকে স্বজনরা তার লাশ গ্রহণ করে অ্যাম্বুলেন্সযোগে বাড়ির উদ্দেশ্যে রওয়ানা করেছেন। এখলাছ বড়লেখা উপজেলার সুজানগর ইউপির উত্তর সুজানগর (তেরাকুড়ি) গ্রামের মৃত আরজান আলীর ছেলে।

বুধবার (২২ মার্চ) সকাল ১১টায় সুজানগর ইউপির উত্তর সুজানগর (তেরাকুড়ি) গ্রামের কবরস্থানের পাশের মাঠে তার জানাজা অনুষ্ঠিত হবে।

পারিবারিক সূত্রে জানা গেছে, এখলাছ আহমদ প্রায় ১৩-১৪ বছর আগে কাতারে পাড়ি দেন। সেখানে তিনি কফিলের অধীনে গাড়ি চালাতেন। গত ১৯ মার্চ সকাল সাড়ে ১১টায় এখলাছ আহমদ ব্রেইন স্ট্রোকে আক্রান্ত হন। তাকে কাতারের একটি হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। পরে ওইদিনই হাসপাতালে তিনি মৃত্যুবরণ করেন। এখলাছ পারিবারিক জীবনে এক কন্যা সন্তানের জনক।

এখলাছের ভাগ্না শাহীন মাহমুদ মঙ্গলবার রাত ১২টায় মুঠোফোনে বলেন, মামার লাশ আজ রাতে দেশে পৌঁছেছে। আমরা লাশ গ্রহণ করে বাড়ির উদ্দেশ্যে রওয়ানা দিয়েছি। তিনি বলেন, মামা গত বছরে দেশে ছুটিতে এসেছিলেন। কথা ছিলো এবছর রোজার পর দেশে আসবেন। কিন্তু তা আর হলো না। এর আগেই তিনি লাশ হয়ে দেশে ফিরলেন। শাহীন বলেন, গত ১৯ মার্চ তিনি কাতারে ব্রেইন স্ট্রোকে আক্রান্ত হন। পরে সেখানকার একটি হাসপাতালে নেওয়ার পর তিনি মারা যান। সেখানে আইনি প্রক্রিয়া শেষে সোমবার লাশ দেশের উদ্দেশ্যে পাঠানো হয়।