মঙ্গলবার, ২৯ নভেম্বর ২০২২ খ্রীষ্টাব্দ | ১৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ



ইউপি চেয়ারম্যানকে গুলি করে হত্যা
নিউজ ডেস্ক

নিউজ ডেস্ক



বিজ্ঞাপন

বরিশালের উজিরপুর উপজেলার জল্লা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান, ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি বিশ্বজিৎ হালদার নান্টুকে (৪০) গুলি করে হত্যা করেছে দুর্বৃত্তরা। উপজেলার জল্লা ইউনিয়নের কারফা বাজারে গতকাল শুক্রবার রাত সাড়ে ৮টার দিকে এ ঘটনা ঘটে। আশঙ্কাজনক অবস্থায় রাত ১০টার দিকে তাকে উদ্ধার করে শের-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। বিশ্বজিৎ হালদার নান্টু কারফা এলাকার শুকলাল হালদারের ছেলে।

এ ঘটনায় স্থানীয় সংসদ সদস্য জেলা আওয়ামী লীগের সাধারন সম্পাদক অ্যাডভোকেট তালুকদার মো. ইউনুসের ব্যক্তিগত সহকারীকে দায়ী করেছেন ক্ষমতাসীনদের একাংশ। তালুকদার ইউনুস অভিযুক্তদের গ্রেফতার দাবি করেছেন।

স্থানীয়রা জানান, বিশ্বজিৎ হালদার নান্টু কারফা বাজারে কাপড়ের দোকানে ছিলেন। রাত সাড়ে ৮টার দিকে একটি মোটরসাইকেল দোকানের সামনে থামে। মোটরসাইকেলে ৩ আরোহী হেলমেট পরিহিত ছিলেন।

এরপর কিছু বুঝে ওঠার আগেই একজন তাকে লক্ষ্য করে বেশ কয়েক রাউন্ড গুলি ছোঁড়ে। এরপর দুর্বৃত্তরা পালিয়ে যায়। আশঙ্কাজনক অবস্থায় বিশ্বজিৎ হালদার নান্টুকে প্রথমে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে সেখান থেকে অবস্থা খারাপ দেখে তাকে শের-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়। পরে শাবিমেকে নেয়া হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

জেলা পুলিশ সুপার সাইফুল ইসলাম জানান, বিশ্বজিৎ হালদার নান্টু’র শরীরের বিভিন্ন স্থানে ৫টি গুলির চিহ্ন রয়েছে। দুর্বৃত্তদের গ্রেপ্তার করতে পুরো এলাকায় তল্লাশি চালানো হচ্ছে।
তিনি আরো বলেন, উজিরপুরে স্থানীয় আওয়ামী লীগের মধ্যে দুটি গ্রুপ রয়েছে। দলীয় অন্তঃদ্বন্দ্বে এই হত্যাকাণ্ড ঘটতে পারে বলে প্রাথমিকভাবে সন্দেহ করা হচ্ছে। এ ঘটনায় মামলা দায়েরসহ আইনগত ব্যবস্থা নেওয়ার হচ্ছে।

এদিকে উপজেলা চেয়ারম্যান হাফিজুর রহমান ইকবাল এই ঘটনায় স্থানীয় সংসদ সদস্যের ব্যক্তিগত সহকারী মো. সাঈদ সহ অন্যান্যদের দায়ী করেছেন।

হত্যার রাজনীতি করেন না দাবী করে স্থানীয় সংসদ সদস্য তালুকদার মো. ইউনুস অভিযুক্তদের সনাক্ত করে দ্রুত গ্রেপ্তার করার জন্য আইন শৃঙ্খলা বাহিনীর প্রতি অনুরোধ জানান।