শনিবার, ২২ জুন ২০২৪ খ্রীষ্টাব্দ | ৮ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ



                    চাইলে বিজ্ঞাপন দিতে পারেন

জুড়ীতে ‘মৃত’ ব্যক্তি ঢিল ছুড়লেন পুলিশকে!



বিজ্ঞাপন

জুড়ী প্রতিনিধি:: মৌলভীবাজারের জুড়ীতে পুলিশের দায়ের করা একটি মামলায় মৃত ব্যক্তি ও প্রবাসীদের আসামী করা হয়েছে বলে জানা গেছে। এ ঘটনায় এলাকায় মিশ্র প্রতিক্রিয়া দেখা দিয়েছে। জানা যায়- গেল বৃহস্পতিবার (০৫ অক্টোবর) জুড়ীতে তত্বাবধায়ক সরকারের দাবিতে মিছিল করে বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামী।

মিছিলের পর পুলিশ বিএনপি ও জামায়াতের নেতাকর্মী ছাড়াও ২৮ জনের নামোল্লেখসহ অজ্ঞাতনামা ২০-২৫ জনকে আসামী করে মামলা করে।

মামলার লিখিত অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, জামায়াত-শিবির ও বিএনপি কর্মীরা জনসাধারণের যান চলাচল বন্ধ ও নাশকতামূলক কর্মকান্ড করার জন্য উত্তেজিত হয়ে রাস্তায় মিছিল বের করলে পুলিশ তাতে বাধা দেয়। পুলিশের বাধা অমান্য করে তারা মিছিল দিতে শুরু করে। পরে নেতাকর্মীরা পুলিশকে উদ্দেশ্য করে ইট-পাটকেল ছুঁড়ে সরকারি কাজে বাধা সৃষ্টি করে। এ ঘটনায় শুক্রবার (০৬ অক্টোবর) পুলিশ বাদী হয়ে জুড়ী থানায় একটি মামলা (মামলা নং-০৬) করে।

বিএনপি ও জামায়াত নেতারা অভিযোগ করে বলেন- মামলার এজাহারের ১১ নম্বর আসামী লোকমান হোসেন মারা যান ২০১৭ সালের ৪ আগস্ট। তিনি উপজেলার হাসনাবাদ গ্রামের হাজী রুমুজ আলীর ছেলে। এ মামলার ৬ নম্বর আসামী জায়েদ আহমদ সৌদি আরবে পাড়ি জমান ৫ বছর আগে। জায়েদ আহমদ উপজেলার হামিদপুর গ্রামের মৃত ফয়জুল্লাহর ছেলে।

ফুলতলা ইউনিয়নের রজব উদ্দীনের ছেলে বুরহান উদ্দীন দুই বছর থেকে আরব আমিরাতে অবস্থান করছেন। মামলায় বুরহান উদ্দিনকে ২৩ নম্বর আসামী করা হয়েছে। ফুলতলা বাজারের ইব্রাহীম আলীর ছেলে নাঈম উদ্দীন ফ্রান্সে পাড়ি জমান ২ বছর আগে। তাকেও পুলিশের করা এই মামলায় আসামী করেছে।

মৃত ব্যক্তি ও প্রবাসীরা আসামী হওয়ার বিষয়ে জানতে চাইলে জুড়ী থানার ওসি মোহাম্মদ মোশারফ হোসেন বলেন- এরকম কিছু হয়ে থাকলে আমরা তদন্ত করে ব্যবস্থা নেব।