শনিবার, ৩ ডিসেম্বর ২০২২ খ্রীষ্টাব্দ | ১৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ



নির্বাচনে মাঠ ছেড়ে যাবেন না, প্রয়োজনে খালি মাঠে গোল দেব: জুড়ীতে স্বাস্থ্যমন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম
নিজস্ব প্রতিবেদক

নিজস্ব প্রতিবেদক



বিজ্ঞাপন

বিএনপিকে উদ্দ্যেশ্য করে আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য, স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম এমপি বলেছেন, আগামী নির্বাচন নিয়ে কোন ফাউল খেলা খেলবেন না। যদি কোন ফাউল খেলা খেলেন তবে খেলার মাঠ থেকে লাল কার্ড দেখিয়ে রেফারি বের করে দেবে। নির্ধারিত সময়ে শেখ হাসিনার অধীনে নির্বাচন হবে। সে নির্বাচনে লড়াই করব এবং আমরা জিতব।

স্বাস্থ্য মন্ত্রী ৪ সেপ্টেম্বর মঙ্গলবার দুপুরে মৌলভীবাজারের জুড়ী উপজেলায় ৫০ শয্যা বিশিষ্ট নব-নির্মিত উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স ভবন উদ্বোধন শেষে অনুষ্ঠিত এক জনসভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন।

জাতীয় সংসদের হুইপ ও মৌলভীবাজার-১ আসনের সংসদ সদস্য মো. শাহাব উদ্দিন এমপির সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায় মন্ত্রী বিএনপিকে উদ্দেশ্য করে আরো বলেন, ‘সাহস থাকলে নির্বাচনে আসেন। নির্বাচনের মাঠ ছেড়ে যাবেন না। যথাসময়ে সুষ্ঠু নির্বাচন হবে। যদি নির্বাচনে না যান তবে প্রয়োজনে খালি মাঠে গোল দেয়া হবে। যদি জ্বালাও পোড়াও করেন তবে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী ব্যবস্থা নেবে। আর অন্য কোনভাবে ক্ষমতায় যাবার দুঃস্বপ্নও দেখবেন না।’

স্বাস্থ্য মন্ত্রী জনসভায় উপস্থিত জনতার উদ্দেশ্যে বলেন, ‘বিগত নির্বাচনে শেখ হাসিনা ক্ষমতায় আসায় আপনারা উন্নয়ন পাচ্ছেন। এখন ভোটের মাধ্যমে তা ফেরত দেওয়ার পালা। গত দশ বছরে শেখ হাসিনা বাংলাদেশকে অনেক দিয়েছেন। শোককে বুকে ধারণ করে একাত্তরের ঘাতক দালালদের বিচার করেছেন। বিগত কোন সরকারই এদের বিচার করে নাই। এত কিছুর পরও বর্তমান প্রধানমন্ত্রী দেশের উন্নয়ন অব্যাহত রেখেছেন। যার ফলে দু’মুঠো ভাত খেয়ে মানুষ সুখে আছে। খাদ্যে স্বয়ংসম্পূর্ণতা অর্জন করেছি। মায়ের মমতা নিয়ে শেখ হাসিনা উন্নয়ন করে যাচ্ছেন। ঘরে ঘরে বিদ্যুৎ পৌঁছে গেছে। জনগণের দোরগড়ায় স্বাস্থ্য সেবা পৌঁছে দিতে নতুন নতুন কমিনিউটি ক্লিনিক হচ্ছে। সে ধারাবাহিকতায় আরো ৭ হাজার ডাক্তার নিয়োগ হবে। জুড়ীতেও কমিউনিটি ক্লিনিক হবে। আমার মেয়াদকালীন সময়ে জুড়ী ও বড়লেখা হাসপাতালের ভিত্তি প্রস্তর স্থাপন ও উদ্বোধন হল।’

এলাকাবাসীর দাবির প্রেক্ষিতে তিনি বলেন, ‘এই মাসেই আপনাদের হাসপাতালে একটি অ্যাম্বুলেন্স দেয়া হবে। পাশাপাশি এ হাসপাতালে চিকিৎসক ও নতুন সরঞ্জাম দ্রুত সময়ে পৌঁছে যাবে। তাছাড়া মৌলভীবাজার জেলায় একটি মেডিকেল কলেজ স্থাপন করা হবে। তবে কিছু দাবি এখন পুরণ করব না। নির্বাচনে জিতলে পুরণ করা হবে। তাই আপনারা হাত তুলে ওয়াদা করেন। এই সরকারকে আবারও ক্ষমতায় দেখতে চান।’

জনসভায় জেলা যুবলীগের সহ-সভাপতি জাহাঙ্গীর আলম ও জুড়ী উপজেলা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক শেখরুল ইসলামের যৌথ সঞ্চালনায় বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন মৌলভীবাজার-২ আসনের সংসদ সদস্য আব্দুল মতিন, জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান আজিজুর রহমান, স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব বাবুল কুমার সাহা, প্রধান নির্বাহী প্রকৌশলী ব্রিগেডিয়ার এম এ মুহিম, জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি নেছার আহমদ ও সাধারণ সম্পাদক মিছবাউর রহমান, জুড়ী উপজেলা চেয়ারম্যান গোলশানা আরা মিলি, আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি বদরুল হোসেন, ভারপ্রাপ্ত সিভিল সার্জন ডাঃ বিরেন্দ্র ভৌমিক, জুড়ী উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডা. মহি উদ্দিন প্রমুখ।

অন্যদিকে জেলার বড়লেখা উপজেলার ৩১ শয্যা বিশিষ্ট স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সকে ৫০ শয্যায় উন্নিত করণ ও নব-নির্মিত ভবনের উদ্বোধন করেন আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য, স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম।

উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আনোয়ার উদ্দিনের পরিচালনায় অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম, হুইপ মো. শাহাব উদ্দিন এমপি, উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান রফিকুল ইসলাম সুন্দর, বড়লেখা উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. আহমদ হোসেন।

এদিন বিকেলে স্বাস্থ্যমন্ত্রী ঢাকার উদ্দেশ্যে জুড়ী ত্যাগ করেন।