শনিবার, ২৬ নভেম্বর ২০২২ খ্রীষ্টাব্দ | ১২ অগ্রহায়ণ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ



কুলাউড়া-শাহবাজপুর রেললাইন পুন:স্থাপনের কাজ পরিদর্শন করলেন হুইপ শাহাব উদ্দিন
নিজস্ব প্রতিবেদক

নিজস্ব প্রতিবেদক



বিজ্ঞাপন

কুলাউড়া-শাহবাজপুর রেললাইন পুন:স্থাপনের কাজ পরিদর্শন করেছেন জাতীয় সংসদের হুইপ আলহাজ্ব শাহাব উদ্দিন এমপি। ১৯ আগস্ট রোববার বিকেলে বড়লেখা উপজেলার উত্তর শাহবাজপুর ইউনিয়নের কুমারশাইল গ্রামে রেললাইন পুন:স্থাপনের কাজ তিনি পরিদর্শন করেন।

এ সময় তিনি সাংবাদিকদের বলেন, ‘কুলাউড়া-শাহবাজপুর রেললাইনের কাজ শুরু হওয়ায় এই এলাকার মানুষ অত্যন্ত আনন্দিত এবং তাদের দীর্ঘদিনের প্রত্যাশা পূরণে তাঁরা মাননীয় প্রধানমন্ত্রীকে ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা জানিয়েছেন। আমি আমার এলাকার জনসাধারণে পক্ষ থেকে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীকে আন্তরিক ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা জানাই। তিনি বলেন, রেললাইনের পুন:স্থাপনের কাজ বাংলাদেশ এবং ভারত যৌথভাবে শুরু করেছে। এর আগে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি এ প্রকল্পের উদ্বোধন করেন।
আজকে এ কাজ শুরু হওয়ায় মানুষ আশ্বস্থ হয়েছে এই রেললাইন পুন:রায় চালু হবে। রেললাইন চালু হলে এই এলাকার মানুষ অর্থনৈতিকভাবে অনেক লাভবান হবে এবং ভারতের সাথে আমাদের রেল যোগাযোগ ও বাণিজ্যিক সম্পর্ক আরও সুগম হবে। সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, আগামী এক বছরের মধ্যে রেললাইনের পুন:স্থাপনের কাজ সম্পন্ন হবে।’


আরও পড়ুন:
কুলাউড়া-শাহবাজপুর রেললাইনের পুন:স্থাপনের কাজ শুরু হয়েছে


রেললাইন পুন:স্থাপনের কাজ পরিদর্শনকালে অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান বিবেকানন্দ দাস নান্টু, সদর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান সোয়েব আহমদ, উপজেলা আওয়ামী লীগের আইন বিষয়ক সম্পাদক গোপাল দত্ত, উত্তর শাহবাজপুর ইউনিয়র পরিষেদের চেয়ারম্যান (ভারপ্রাপ্ত) সেলিম আহমদ খান, ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল খালিক, জ্যেষ্ঠ সহ সভাপতি রফিক উদ্দিন আহমদ,  উপজেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক (ভারপ্রাপ্ত) ফরহাদ আহমদ, আওয়ামী লীগের যুগ্ম সম্পাদক আমির উদ্দিন, ইউপি সদস্য রফিক উদ্দিন, আলিম উদ্দিন, উপজেলা যুবলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক এম. জুবের আহমদ, সদস্য আহমদ হাসান জুয়েল, ইউনিয়ন যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক কামাল হোসেন, ওয়ার্ড আওয়ামী লীগ সভাপতি হাজি মোদরিছ আলী, ওয়ার্ড সাধারণ সম্পাদক মো: সোলেমান, ইউনিয়ন যুবলীগের সদস্য রফিক উদ্দিন, লুৎফুর রহমান, দুলাল উদ্দিন, ইসলাম উদ্দিন মন্টু, রিন্টু মল্লিক, সত্য বিশ্বাস, ইউনিয়ন ছাত্রলীগের যুগ্ম আহবায়ক জাহিদ আহমদ, জাফর আহমদ, ছাত্রলীগ নেতা রিফাত বিন শাওন, হাসান আহমদ প্রমুখ।

উল্লেখ্য, গত ১০ আগস্ট শুক্রবার থেকে আনুষ্ঠানিকভাবে রেলের পুরাতন ব্রিজ ও রেল লাইন উঠানোর কাজ শুরু হয়েছে। এছাড়া চলতি বছরের শুরুতেই বড়লেখা উপজেলার উত্তর শাহবাজপুর ও দক্ষিণভাগ এলাকায় দু’টি ইয়ার্ড তৈরি করাসহ প্রাথমিক পর্যায়ের কাজ হয়েছে।

এর আগে গত বছরের ১৫ নভেম্বর বুধবার রাজধানীর রেলভবনে বাংলাদেশ রেলওয়ে এবং ভারতের কালিন্দী রেল নির্মাণ প্রতিষ্ঠানের (টেক্সমাকো রেল অ্যান্ড ইঞ্জিনিয়ারিং লিমিডেটের একটি বিভাগ) সঙ্গে এই চুক্তি হয়। বাংলাদেশ রেলওয়ের মহাব্যবস্থাপক (পূর্ব) আব্দুল হাই ও ভারতের কালিন্দী রেল নির্মাণের ভাইস প্রেসিডেন্ট শারদ শর্মা চুক্তিতে স্বাক্ষর করেন।

রেলওয়ে সূত্র জানিয়েছে, ৪৪ দশমিক ৭৭ কিলোমিটারের পুরোটাই দ্বৈত গেজ লাইনে পুনর্বাসন করা হবে। এর মধ্যে সাত দশমিক ৭৭ কিলোমিটার লুপ লাইনের কাজ হবে। ট্রেন লাইন পুনর্বাসনের পাশাপাশি ছয়টি স্টেশনের মধ্যে জুড়ী, দক্ষিণভাগ, বড়লেখা ও শাহবাজপুর বি শ্রেণি এবং কাঁঠালতলি ও মুড়াউল স্টেশন ডি শ্রেণিতে পুনসংস্কার করা হবে। এই রেললাইনটি চালু হলে কুলাউড়া থেকে শাহবাজপুর পর্যন্ত প্রতিদিন পাঁচটি ট্রেন চলাচল করবে। লোকাল ট্রেন ছাড়াও আন্তঃনগর ট্রেন চলবে। পরবর্তী সময়ে ভারতীয় ট্রেনও চলবে এ পথ দিয়ে। কাজ শুরুর পর ২৪ মাসের মধ্যে কাজ শেষ হওয়ার কথা রয়েছে।