মঙ্গলবার, ৫ মার্চ ২০২৪ খ্রীষ্টাব্দ | ২২ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ



                    চাইলে বিজ্ঞাপন দিতে পারেন

লন্ডন বাংলা প্রেসক্লাবের নতুন সভাপতি জুবায়ের, সম্পাদক তাইসির



বিজ্ঞাপন

ব্যাপক উৎসাহ উদ্দীপনার মধ্য দিয়ে অনুষ্ঠিত হলো ব্রিটেনে বাংলা মিডিয়ার প্রতিনিধিত্বশীল সংগঠন লন্ডন বাংলা প্রেস ক্লাবের নির্বাচন (২০২৪) । নির্বাচনে মোহাম্মদ জুবায়ের প্রেসিডেণ্ট, তাইসির মাহমুদ জেনারেল সেক্রেটারী ও সালেহ আহমেদ ট্রেজারার নির্বাচিত হয়েছেন।

নবনির্বাচিত প্রেসিডেন্ট মোহাম্মদ জুবায়ের তাঁর শুভেচ্ছা বক্তব্যে ক্লাবের সকল সদস্যকে সঙ্গে নিয়ে নতুন নতুন কর্ম পরিকল্পনার মাধ্যমে ক্লাবটিকে অনন্য উচ্চতায় নিয়ে যাওয়ার প্রত্যয় ব্যক্ত করেন।

পুননির্বাচিত জেনারেল সেক্রেটারি তাইসির মাহমুদ বলেন, এই ক্লাবের সবচেয়ে সুন্দর দিকটি হলো দু’বছর পরপর একটি উৎসবমুখর নির্বাচন হওয়া । নির্বাচনে দুটো এলায়েন্স প্রতিদ্বন্দ্বিতা করলেও নির্বাচন শেষ হওয়ার সাথে সাথে আমরা একটি এলায়েন্স হয়ে যাই। একটি টিম হিসেবে কাজ করি । তিনি বলেন, এমন একটি ক্লাবে দ্বিতীয়বারের মতো জেনারেল সেক্রেটারি নির্বাচিত হওয়া আমার জন্য গর্ব ও সম্মানের-যে ক্লাবে অনেক মাল্টি টেলেন্ট সদস্য রয়েছেন। আমি তাঁদের সহযোগিতা নিয়ে ক্লাবকে অনেক দূর এগিয়ে নিয়ে যেতে চাই।

নির্বাচনে ১৫টি পদের মধ্যে সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকসহ ১২টি পদে বিজয়ী হয়েছে জুবায়ের-তাইসির-মুরাদ এলায়েন্স। আর নাহাস-মুসলেহ-সালেহ এলায়েন্স পেয়েছে ৩টি পদ। দুই এলায়েন্সে ৩০জন এবং ১ জন স্বতন্ত্র প্রার্থীসহ মোট ৩১ প্রার্থী নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেন । নির্বাচনে ক্লাবের ২৮৮ সদস্য ভোট দেন।

বেলা আড়াইটায় শুরু হয়ে একটানা সন্ধ্যা সাড়ে ছয়টা পর্যন্ত নির্বাচন পরিচালিত হয় । ক্লাবের ২৮৮জন সদস্য গোপন ব্যালটের মাধ্যমে ভোট দিয়ে তাদের পছন্দের প্রার্থীদের নির্বাচিত করেন । নির্বাচনে কমিশনার হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন বিসিএ’র সাবেক প্রেসিডেন্ট বজলুর রশীদ এমবিই, স্পিটালফিল্ডস স্মল বিজনেস এসোসিয়েশনের চেয়ারম্যান আজিজ চৌধুরী ও ব্যারিস্টার আনোয়ার বাবুল মিয়া।

কে কত ভোট পেলেন :
১৪১ ভোট পেয়ে প্রথমবারের মতো প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হয়েছেন চ্যানেল এস-এর সাবেক চীফ রিপোর্টার ও রিয়াল নিউজের ফাউন্ডিং এডিটর মোহাম্মদ জুবায়ের । তাঁর প্রতিদ্বন্দ্বি প্রার্থী ক্লাবের সাবেক সভাপতি সৈয়দ নাহাস পাশা পেয়েছেন ১৩৯ ভোট।
সাধারণ সম্পাদক পদে ১২৩ ভোট পেয়ে পুনর্নির্বাচিত হয়েছেন সাপ্তাহিক দেশ সম্পাদক তাইসির মাহমুদ । তাঁর দুই প্রতিদ্বন্দ্বির মধ্যে মোঃ মোসলেহ উদ্দিন আহমদ পেয়েছেন ১০৩ ভোট ও স্বতন্ত্র প্রার্থী জি আর সোহেল পেয়েছেন ৫৭ ভোট।
১৫৭ ভোট পেয়ে দ্বিতীয়বারের মতো ট্রেজারার নির্বাচিত হয়েছেন বাংলা পোস্ট এর হেড অব প্রোডাকশন সালেহ আহমদ। তাঁর প্রতিদ্বন্দ্বি প্রার্থী আইনঅন টিভি চীফ রিপোর্টার আব্দুল কাদির চৌধুরী মুরাদ পেয়েছেন ১২১ ভোট ।
সিনিয়র সহ-সভাপতি পদে ১৯১ ভোট পেয়ে পুনরায় নির্বাচিত হয়েছেন সাপ্তাহিক বাংলা পোস্ট সম্পাদক ব্যারিস্টার তারেক চৌধুরী । তাঁর প্রতিদ্বন্দ্বি প্রার্থী মোস্তাক আলী বাবুল পেয়েছেন ৮৬ ভোট। তারেক চৌধুরীর সাথে তাঁর ভোটের ব্যবধান ১০৫টি।
সহ-সভাপতি পদে ১৪৩ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন এটিএন বাংলা ইউকের হেড অব নিউজ সাঈম চৌধুরী। নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী মাসিক দর্পণ সম্পাদক রহমত আলী পেয়েছেন ১৩৬ ভোট।
সহ-সাধারণ সম্পাদক পদে চ্যানেল এস-এর সিনিয়র রিপোর্টার রেজাউল করিম মৃধা ১৪৩ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন । তাঁর প্রতিদ্বন্দ্বি প্রার্থী মোঃ আব্দুল কাইয়ূম পেয়েছেন ১৩৭ ভোট।
সহ কোষাধ্যক্ষ পদে ১৫৬ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন চ্যানেল এস-এর সিনিয়র রিপোর্টার ইব্রাহিম খলিল। নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বি সারোয়ার হোসেন পেয়েছেন ১০৭ ভোট ।
অর্গানাইজিং এন্ড ট্রেইনিং সেক্রেটারী পদে এনটিভি ইউরোপের চীফ রিপোর্টার আকরামুল হোসেন ১৬৮ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন। তাঁর প্রতিদ্বন্দ্বি প্রার্থী ইমরান আহমদ পেয়েছেন ১১৩ ভোট।
মিডিয়া এন্ড আইটি সেক্রেটারি পদে টুএ নিউজের ফাউন্ডার মোহাম্মদ আবদুল হান্নান ১৯০ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন। তার প্রতিদ্বন্দ্বি প্রার্থী মাহবুব আলী খানশূর পেয়েছেন ৮৫ ভোট।
ইভেন্টস এন্ড ফ্যাসিলিটিজ সেক্রেটারি পদে ১৭৭ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন চ্যানেল এস-এর সিনিয়র নিউজ প্রেজেন্টার রুপি আমিন। তাঁর নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বি শাহ মোস্তাফিজুর রহমান বেলাল পেয়েছেন ১০২ ভোট।
কার্যনির্বাহী সদস্য পদে ১৭৬ ভোট পেয়ে প্রথম সদস্য নির্বাচিত হয়েছেন এলবি২৪ এর মিডল্যান্ড ব্যুরো প্রধান ও বাংলা ভয়েস’র চীফ রিপোর্টার সাহিদুর রহমান সুহেল, চ্যানেল এস-এর স্টাফ রিপোর্টার ফয়সল মাহমুদ (প্রাপ্ত ভোট ১৭১), নতুন দিন-এর এক্সিকিউটিভ এডিটর মরিয়ম পলি রহমান (প্রাপ্ত ভোট ১৫৫), টিভি ওয়ানের সিনিয়র রিপোর্টার জাকির হোসেন কয়েস (প্রাপ্ত ভোট ১৩৭) ও লন্ডন বিচিত্রার সম্পাদক আনোয়ার শাহজাহান (প্রাপ্ত ভোট ১৩১)।
উল্লেখ্য, নির্বাচনে ক্লাবের ৩০ বছরের ইতিহাসে এবারই প্রথম কোনো নারী সাংবাদিক (রুপি আমিন) সম্পাদকীয় পদে জয়লাভ করেছেন এবং লন্ডনের বাইরের একজন সাংবাদিক (সাহিদুর রহমান সুহেল) নির্বাহী কমিটিতে স্থান পেয়েছেন।

বার্ষিক সাধারণ সভা: এর আগে বেলা দেড়টায় অনুষ্ঠিত হয় ক্লাবের বার্ষিক সাধারণ সভা । ক্লাবের বিদায়ী প্রেসিডেন্ট মোহাম্মদ এমদাদুল হক চৌধুরীর সভাপতিত্বে ও জেনারেল সেক্রেটারী তাইসির মাহমুদের পরিচালনায় অনুষ্ঠিত সভায় ট্রেজারার সালেহ আহমদ বার্ষিক আর্থিক প্রতিবেদন উপস্থাপন করেন । প্রশোত্তর পর্বে ক্লাবের সদস্যরা নতুন সদস্যপদ না দেয়া নিয়ে তাদের অসন্তোষ, নির্বাচনে অ্যালায়েন্স পদ্ধতি বাতিল এবং এলবিপিসি জার্নাল প্রকাশসহ নতুন নতুন কর্মসূচী গ্রহণ করার মাধ্যমে ক্লাবটিকে একটি বুদ্ধিবৃত্তিক সংগঠনে পরিণত করার ওপর জোর দাবী জানান। মধ্যাহ্ন ভোজের মাধ্যমে ক্লাবের দ্বিবার্ষিক সাধারণ সভার সমাপ্তি ঘটে।

সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান : সন্ধ্যা ৬টায় শুরু হয় সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান। এতে অতিথি শিল্পী হিসেবে গান পরিবেশন করেন বাংলাদেশ থেকে আগত কণ্ঠশিল্পী বিথী চৌধুরী ও লন্ডনের শিল্পী শম্পা দেওয়ান। ক্লাব-সদস্যদের মধ্যে গান, কবিতা, ছড়া, কৌতুক, গীতি কাব্য ও পুঁথিপাঠ করেন সাংবাদিক মোস্তফা কামাল মিলন, রূপি আমিন, কলন্দর তালুকদার, আব্দুল হামিদ টিপু, ববি রায়, সাইফুর রেজা চৌধুরী পথিক । কবিতা পাঠ করেন মিসবাহ জামাল, কবি আহমেদ হোসেন হেলাল, কবি সারওয়ার-ই আলম, শহিদুল ইসলাম সাগর, সালাউদ্দিন শাহীন, জিয়াউর রহমান সাকলেন, কবি হেলাল সাইফ, কবি সৈয়দ রুম্মান, সাংবাদিক ও ছড়াকার আহমদ শামীম, ছড়াকার লুৎফুর রহমান, মামুন রশীদ ও আলাউর খান শাহীন।

অ্যাওয়ার্ডস প্রদান পর্ব : সাংস্কৃতিক পর্ব শেষে বিভিন্ন ক্ষেত্রে অবদানের স্বীকৃতিস্বরূপ সম্মাননা জানানো হয়। সম্মাননা লাভ করেন ক্লাবের আজীবন সদস্য বিশিষ্ট ব্যবসায়ী মুকিম আহমদ, ড. জাকির খান, স্পিটালফিল্ডস স্মল বিজনেস এসোসিয়েশনের চেয়ারম্যান আজিজ চৌধুরী, লন্ডন টাইগার্স এর সিইও মেসবাহ আহমদ, লন্ডন ক্রিকেট লীগের সেক্রেটারি নাহিদ নাওয়াজ রানা।
অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে বক্তব্য রাখেন ও এওয়ার্ডস তুলে দেন পপলার এন্ড লাইম হাউজ আসনের এমপি আপসানা বেগম, যুক্তরাজ্যস্থ বাংলাদেশ হাইকমিশনার সাইদা মুনা তাসনিম, টাওয়ার হ্যামলেটস কাউন্সিলের ডেপুটি মেয়র মাইয়ুম মিয়া তালুকদার, টাওয়ার হ্যামলেটস লেবার গ্রুপের লীডার সিরাজুল ইসলাম, বাংলা প্রেস ক্লাব বার্মিংহাম এন্ড মিডল্যান্ডস প্রেসিডেন্ট মোহাম্মদ মারুফ, বার্মিংহ্যাম বাংলা প্রেস ক্লাবের প্রেসিডেন্ট আব্দুল আহাদ সুমনের পক্ষে মোঃ সেলিম উদ্দিন, নর্থ ইংল্যান্ড বাংলাদেশী টিভি জার্নালিস্ট এসোসিয়েশনের প্রেসিডেন্ট শেখ সুরত মিয়া আসাব, নর্থ ইংল্যান্ড বাংলাদেশী টিভি রিপোর্টার এসোসিয়েশনের প্রেসিডেন্ট মোহাম্মদ শাহাজান, লীডস বাংলা প্রেস ক্লাবের প্রেসিডেন্ট এমজি কিবরিয়া ও লিভারপুল বাংলা প্রেস ক্লাবের সেক্রেটারি আবু সাঈদ চৌধুরী সাদী।

বিদায়ী নেতৃবৃন্দকে এওয়ার্ড প্রদান : প্রেস ক্লাবের বিদায়ী কমিটির বিদায়ী প্রেসিডেন্ট মোহাম্মদ এমদাদুল হক চৌধুরী, বিদায়ী প্রথম নির্বাহী সদস্য আহাদ চৌধুরী বাবু, বিদায়ী নির্বাহী সদস্য কবি শাহনাজ সুলতানা ও জেইউএম নাজমুল হোসাইনকে ক্লাবের কাজের স্বীকৃতিসরূপ এওয়ার্ড প্রদান করা হয় । এওয়ার্ড তুলে দেন প্রেস ক্লাবের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি মহিব চৌধুরী, সাবেক সভাপতি মোহাম্মদ বেলাল আহমদ, সাবেক সভাপতি সৈয়দ নাহাস পাশা, সাবেক সাধারণ সম্পাদক মোহাম্মদ আব্দুস সাত্তার ও সাবেক সাধারণ সম্পাদক (নবনির্বাচিত প্রেসিডেন্ট) মুহাম্মদ জুবায়ের।
এছাড়াও, লন্ডন বাংলা প্রেস ক্লাবের সংবাদ সম্মেলনগুলোতে সর্বাধিক উপস্থিতির জন্য হাইয়েস্ট প্রেজেন্স এন্ড রিপোর্টিং অ্যাওয়ার্ড লাভ করেন টিভিওয়ান-এর সিনিয়র রিপোর্টার জাকির হোসাইন কয়েস এবং নির্বাহী কমিটিতে সক্রিয় ভুমিকা পালনের জন্য অ্যাওয়ার্ড লাভ করেন ইভেন্টস এন্ড ফ্যাসিলিটিজ সেক্রেটারি রেজাউল করিম মৃধা।
অনুষ্ঠানে বিলেতের বিভিন্ন শহর থেকে ক্লাবের সদস্যরা স্বত:স্ফূর্তভাবে অংশগ্রহণ করেন। বেলা দেড়টায় শুরু হয়ে অনুষ্ঠানটি নৈশ ভোজের মাধ্যমে রাত এগারোটায় শেষ হয়। সংবাদ বিজ্ঞপ্তি