রবিবার, ২১ জুলাই ২০২৪ খ্রীষ্টাব্দ | ৬ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ



                    চাইলে বিজ্ঞাপন দিতে পারেন

নিজের সন্তান কম হওয়ার জেদের বশে জা’য়ের সন্তানকে হত্যা!



বিজ্ঞাপন

নিউজ ডেস্ক: হবিগঞ্জের বানিয়াচং উপজেলায় মুখে আঙুল ঢুকিয়ে আড়াই মাসের এক শিশুকে হত্যার অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ঘটনার দায় স্বীকার করে আদালতে জবানবন্দি দিয়েছেন মারা যাওয়া শিশুটির আপন চাচী।

বুধবার (৮ ডিসেম্বর) দুপুরে হবিগঞ্জের সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট সুলতান উদ্দিন প্রধান ১৬৪ ধারায় অভিযুক্ত সাহেনা বেগমের (৩০) স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দেন। শাহেনা উপজেলা সদরের আমিরখানী গ্রামের ফয়েজ আহমেদের স্ত্রী।

নিহত শিশুটির নাম হোসাইন মিয়া। সে একই গ্রামের ফরহাদ মিয়ার ছেলে সে। গ্রেফতার শাহেনা শিশুটির আপন চাচী।

স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দির বরাত দিয়ে বানিয়াচং থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. এমরান হোসেন জানান, শিশু হোসাইনের মায়ের সঙ্গে সাহেনার পারিবারিক মনোমালিন্য ছিল। এছাড়া হোসাইনের আরও দুই ভাই রয়েছে, কিন্তু সাহেনার মাত্র একটি ছেলে সন্তান থাকায় তার মনে হিংসা কাজ করতো। এর জেরে মঙ্গলবার বিকালে শিশু হোসাইনকে তাদের ঘরে এক পেয়ে মুখে আঙুল ঢুকিয়ে হত্যা করে সাহেনা পালিয়ে যান। এ সময় ঘরে থাকা নিহত হোসাইনের আরেক ভাই বিষয়টি দেখে ফেলে। পরে ওইদিনই শিশুটির পিতা ফরহাদ মিয়া বানিয়াচং থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করলে পুলিশ রাতে সাহেনাকে গ্রেফতার করে।

বানিয়াচং থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. এমরান হোসেন বলেন, জা’য়ের তিনটি ছেলে সন্তান ও সাহেনার মাত্র একটি ছেলে সন্তান হওয়ায় তার হিংসা হতো। দুইজনের মধ্যে আগের বিরোধও ছিল। এনিয়ে জেদে সাহেনা ছেলেটিকে হত্যা করেছেন। জাবানবন্দি গ্রহণ শেষে তাকে হবিগঞ্জ জেলা কারাগারে পাঠানো হয়। এছাড়া ময়নাতদন্তে শেষে শিশুটির মরদেহ তার পরিবারের নিকট হস্তান্তর করা হয়েছে।