বুধবার, ৫ অক্টোবর ২০২২ খ্রীষ্টাব্দ | ২০ আশ্বিন ১৪২৯ বঙ্গাব্দ



কুলাউড়ায় গ্রীল কাটা চোর চক্র তৎপর, জনমনে আতঙ্ক



বিজ্ঞাপন

তারেক হাসান, কুলাউড়া:
কুলাউড়া পৌর এলকায় কয়েকদিন থেকে গ্রীল কাটা চোর চক্রের তৎপরতা বৃদ্ধি পেয়েছে। চোরের উপদ্রবে স্থানিয় বাসা-বাড়ির লোকজন ও ভাড়টিয়াদের মধ্যে আতঙ্ক বিরাজ করছে। বিশেষ করে চোর চক্র তালাবদ্ধ বাসা-বাড়ি থেকে মূল্যবান মালামাল নিয়ে পালিয়ে যাচ্ছে।

স্থানীয়দের ধারণা, সংঘবদ্ধ এ চক্রটি অত্যাধনিক যন্ত্রপাতি ব্যাবহার করছে, যার কারণে বাসার পাশাপাশি থাকার পরও চুরির ঘটনা অন্য ফ্লাটের লোকজন আঁচ করতে পারে না। সব মিলিয়ে চোরের উপদ্রবে এখন আতঙ্কিত কুলাউড়া পৌর এলাকার লোকজন। এসব বিষয়ে দ্রুত প্রশাসনিক ব্যবস্থা জোরদার করার দাবিও জানিয়েছেন তাঁরা।

কুলাউড়া সরকারী কলেজের উপাধ্যক্ষ ও সাপ্তাহিক হাকালুকির সম্পাদক মো. আব্দুল হান্নান জানান, কুলাউড়া থানা রোডের তার লন্ডন প্রবাসী ভগ্নিপতি মরহুম সোনাওর মিয়ার শোভন ভিলায় তালাবদ্ধ বাসায় এক দুঃসাহসিক চুরি সংঘটিত হয়েছে। গত শনিবার বাসার দরজা খুলে ভেতরে ঢুকে সকল আলমীরা খোলা ও তছনছ অবস্থায় দেখতে পান। পরে বিষয়টি কুলাউড়া থানা পুলিশকে অবহিত করলে এসআই ইয়াছিন ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন।

১৭ জানুয়ারি গত বৃহস্পতিবার পৌর এলাকার বাদে মনসুরস্থ সাংবাদিক মো. তারেক হাসানের বাসায় একইভাবে দুঃসাহসিক চুরি সংঘটিত হয়েছে। তালাবদ্ধ বাসার জানালার গ্রীল কেটে চোরেরা ঘরে প্রবেশ করে মালামাল তছনছ করেছে। পরে খবর পেয়ে কুলাউড়া থানার এসআই দিদার ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন। অনুরুপ ভাবে কয়েক বছর পূর্বে একই কৌশলে চোর চক্র তার বাসায় প্রবেশ করে স্বর্ণালংকার, নগদ অর্থসহ মূল্যবান মালামাল নিয়ে পালিয়ে যায়। এ ঘটনায় মামলা করা হলেও এখনো কোনো মালামাল উদ্ধার হয়নি।

গত বৃহস্পতিবার দক্ষিণ বাজার বাসস্ট্যান্ড সংলগ্ম বিজন দেবের (তারিনি ড্রাইভার বাড়ি) ভাড়াটিয়া এক শিক্ষিকার বাসায় রাতে চুরি সংগঠিত হয়। তিনি জানান চোর চক্র জানালার লক ভেঙ্গে ঘরের ভেতর থেকে স্বর্ণালংকার, মোবাইল ফোনসহ মূল্যবান মালামাল নিয়ে পালিয়ে যায়।

সাপ্তাহ খানেক আগে উত্তরবাজার হাসপাতালের সম্মুখে চৌধুরী ম্যানশন ৪র্থ তলায় রাতের বেলা হানা দিয়ে চোরেরা প্রবাসি নুরুজ্জামান নামে এক ভাড়াটিয়ার ঘর থেকে কৌশলে জানালা খুলে ল্যাপটপ, ট্যাবসহ মূল্যবান মালামাল নিয়ে চোরেরা পালিয়ে যায়।

কয়েকদিন পূর্বে সাংবাদিক এমদাদুর রহমান চৌধুরী জিয়ার কুলাউড়া কলেজ রোডের কাছিম নগরস্থ বাড়িতে চোরেরা হানা দেয়। তিনি জানান রান্নাঘরের দরজার থালা ভেঙে ঘরের ভিতর ঢুকে স্বর্ণালংকারসহ মূল্যবান মালামাল নিয়ে চোরেরা পালিয়ে যায়। খবর পেয়ে কুলাউড়া থানার এসআই জহিরুল ইসলাম তালুকদার ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন।

সম্প্রতি থানা রোডের সাংবাদিক এস আলম সুমনের বাসায় পেছনের গেটের গ্রীলের কড়া ভেংগে ঘরে প্রবেশ করে চোর চক্র নগদ টাকা স্বর্ণালংকার সহ মূল্যবান মালামাল নিয়ে পালিয়ে যায়। তিনি জানান এ ঘটনায় থানায় মামলা দায়ের করা হলেও কোনো মালামাল উদ্ধার হয়নি।

এ বিষয়ে কুলাউড়া থানার অফিসার ইনচার্জ শামীম মুসা গত সোমবার উপজেলা আইন-শৃঙ্খলা কমিটির সভায় চুরি রোধে পুলিশের পাশাপাশি স্থানীয়ভাবে পাহারার ব্যবস্থাসহ বাসা-বাড়ির মালিকদের সতর্ক থাকার পরামর্শ প্রদান করেন।