শনিবার, ২৬ নভেম্বর ২০২২ খ্রীষ্টাব্দ | ১২ অগ্রহায়ণ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ



সিলেটকে স্মার্ট সিটি হিসেবে গড়ে তোলা সম্ভব: জামিলুর রেজা চৌধুরী
খবর: সিলেট টুডে

খবর: সিলেট টুডে



বিজ্ঞাপন

তত্ত্বাবধায়ক সরকারের সাবেক উপদেষ্টা, সিলেট সিটি করপোরেশনের (সিসিক)-এর প্রধান উপদেষ্টা, প্রকৌশলী ও প্রযুক্তিবিদ অধ্যাপক ড. জামিলুর রেজা চৌধুরী বলেছেন, দ্রুত সিলেটের অগ্রগতি হচ্ছে। সহায়তা পেলে সিলেটকে স্মার্ট সিটি হিসেবে গড়ে তুলা সম্ভব।

বৃহস্পতিবার (১১ অক্টোবর) রাতে জাতীয় অধ্যাপক হিসেবে ড. জামিলুর রেজা চৌধুরী মনোনীত হওয়ায় সিসিকের পক্ষ থেকে তাঁকে দেয়া নাগরিক সংবর্ধনার জবাবে এ কথা বলেন তিনি।

সিসিক মেয়র আরিফুল হক চৌধুরীর সভাপতিত্বে সিলেটের একটি অভিজাত হোটেলে আয়োজিত এই নাগরিক সংবর্ধনায় জাতীয় অধ্যাপক ড. জামিলুর রেজা চৌধুরী বলেন, দেশ আমাকে যা দিয়েছে, আমি যেন দিতে পারি। জীবনের শেষ দিন পর্যন্ত আমার সেই প্রচেষ্টা অব্যাহত থাকবে। বিজ্ঞান ও প্রযুক্তিতে বাংলাদেশ এগিয়েছে দেখতে চাই।

নগরীর উন্নয়নে সিলেট সিটি করপোরেশনের একক কর্তৃত্ব রয়েছে জানিয়ে তিনি আরো বলেন, ঢাকা বা চট্টগ্রামসহ অন্যান্য সিটিতে একক কর্তৃত্বাধীন প্রতিষ্ঠান না থাকায় তাদেরকে উন্নয়ন কাজের জন্য অনেক দুর্ভোগ পোহাতে হয়। এ নিয়ে অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আব্দুল মুহিতের সাথে আমার কথা হয়েছে উল্লেখ করে মন্ত্রীর বরাত দিয়ে ড. জামিলুর রেজা চৌধুরী বলেন, আমাকে অর্থমন্ত্রী সিলেট ডেভলাপম্যান্ট অথরিটি এই কারণেই করতে দেবেন না বলে জানিয়েছেন। তবে এটা অর্থমন্ত্রী কতদিন রাখতে পারবেন তা নিশ্চিত নয়।

সিসিক মেয়রের প্রসঙ্গ টেনে তত্ত্বাবধায়ক সরকারের সাবেক এই উপদেষ্টা আরো বলেন, দ্বিতীয় মেয়াদে দায়িত্বভার গ্রহণের পরপরই তিনি কাজে লেগে গেছেন। সিলেট মহানগরীর সমস্যাগুলো কাঠিয়ে উঠতে মেয়র আরিফ পারবেন। সেক্ষেত্রে সিলেটের বিশ্ববিদ্যালয় গুলোর সহায়তা পেলে আরো এগিয়ে যাওয়া যাবে। বলে আমি আশা করি। সিলেটের ওয়েস্ট ম্যানেজমেন্ট ও ক্লিনিক্যাল ওয়েস্ট ম্যানেজমেন্ট নিয়ে কাজ শুরু করা হচ্ছে বলে জানান তিনি।

সিলেটে শিক্ষার হার কমে যাওয়া প্রসঙ্গে এই শিক্ষাবিদ বলেন, আমি শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদের সাথে আলাপ করেছি কিভাবে সিলেটের শিক্ষার হার বাড়ানো যায়। ৭৫ সালের পর থেকে এখন পর্যন্ত বাংলাদেশে ২৫জন জাতীয় অধ্যাপক হয়েছেন যার মধ্যে সিলেটের আমিসহ ৫জন হয়েছি। পরিমাণে এটা কম নয়। আগামীতে এই হার অব্যাহত থাকা নিয়ে আক্ষেপ প্রকাশ করেন তিনি।

সিলেটের কয়েকটি বিষয়ে আশাবাদ জানিয়ে প্রকৌশলী ও প্রযুক্তিবিদ ড. জামিলুর রেজা চৌধুরী আরো বলেন, সিলেটের দ্রুত উন্নতি হচ্ছে। নদীকে ঘিরে পৃথিবীর বেশিরভাগ সভ্যতা গড়ে উঠেছে। এখনো সুরমা নদীকে বাঁচানো সম্ভব বলে তিনি জানান।

নাগরিক সংবর্ধনায় ড. জামিলুর রেজা চৌধুরী হাতে সিলেট নগরীর প্রতীকী চাবি তোলে দেন সিলেট সিটি করপোরেশনের মেয়র আরিফুল হক চৌধুরী সহ কাউন্সিলারবৃন্দ।

আমিনুল ইসলাম লিটন ও ফাতেমা রশিদ সাবার সঞ্চালনায় নাগরিক সংবর্ধনায় অনুষ্ঠানের শুরুতে পবিত্র কোরআন থেকে তেলাওয়াত করেন সিসিকের নির্বাহী প্রকৌশলী ইঞ্জিনিয়ার আলী আকবর ও গীতাপাঠ করেন সিসিকের কর্মকর্তা চন্দন দাশ।

অনুষ্ঠানে শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন লিটল মটরসের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা এস এ ফারুক, সিলেট ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির ভারপ্রাপ্ত উপাচার্য মনির উদ্দিন, শিক্ষাবিদ ড. কবির চৌধুরী, সিলেট কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক মো. আবুল কাশেম, শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক ঝির বিন আলম, ড. শামিমুর রহমান, সিসিক কাউন্সিলর আফতাব হোসেন খান, নাজনিন আক্তার, আজম খান, সিলেট জেলা আইনজীবী সমিতির সভাপতি এডভোকেট মো. লালা, সুজন সিলেটের সভাপতি ফারুক মাহমুদ চৌধুরী, সিলেট প্রেসক্লাব সভাপতি ইকরামুল কবির প্রমুখ।

এছাড়া অনুষ্ঠানে বিভিন্ন সামাজিক সংগঠনের নেতৃবৃন্দ, সাংবাদিক, সাংস্কৃতিক, পেশাজীবী সংগঠনের সদস্য, সিটি কর্পোরেশনের কর্মকর্তা-কর্মচারী ও বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের প্রকৌশলীরা উপস্থিত ছিলেন।