মঙ্গলবার, ২৯ নভেম্বর ২০২২ খ্রীষ্টাব্দ | ১৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ



বঙ্গোপসাগরে ৬ ট্রলার ডুবে শতাধিক জেলে নিখোঁজ
নিউজ ডেস্ক

নিউজ ডেস্ক



বিজ্ঞাপন

বঙ্গোপসাগরে সৃষ্ট নিম্নচাপে আকষ্মিক ঝড়ের কবলে পড়ে ১৭ জেলেসহ একটি ফিসিং ট্রলার ডুবির ঘটনা ঘটেছে। শরণখোলা উপজেলার ৬টি ট্রলারসহ শতাধিক জেলে নিখোঁজ রয়েছে বলে খবর পাওয়া গেছে।

শরণখোলা উপজেলা ট্রলার মালিক সমিতির সভাপতি আবুল হোসেন ও মৎস্য ব্যবসায়ী তৌহিদুল ইসলাম তালুকদার জানান, ২০ সেপ্টেম্বর (বৃহস্পতিবার) রাত সাড়ে ১১টার দিকে সময় গভীর সাগর থেকে উপকূলীয় এলাকায় ফেরার পথে এ ঘটনা ঘটে। এসময় উপজেলা রাজৈর গ্রামের শহিদুল ইসলাম ফরাজীর মালিকানাধীন এফ.বি মারিয়া-১ নামের একটি ফিসিং ট্রলার ১৭ জেলেসহ ডুবে যায়। ডুবে যাওয়া জেলেদের মধ্যে ৯ জনকে ভারতীয় জেলেরা উদ্ধার করতে পারলেও বাকি ৮ জনের খোঁজ মেলেনি।

একই সময় উপজেলার রায়েন্দা বাজারের তৌহিদুল ইসলামের এফ.বি আজমীর শরিফ-১, উত্তর কদমতলা গ্রামের বিলাশ রায় কালুর এফ.বি সাগর-১, রাজৈর গ্রামের আঃ মালেক মোল্লার এফ.বি শাওন ও আমড়াগাছিয়ার রাজাপুর গ্রামের ইউনুছ শিকদার আল্লার দান নামের ফিসিং ট্রলার ও সন্নাসী সংলগ্ন আমড়াগাছিয়া গ্রামের সালাম মিয়া ও মনির হোসেনের ট্রলার সহ ট্রলারে থাকা শতাধিক জেলে নিখোঁজ রয়েছেন।

ভারতীয় জেলেদের সুত্রে এফ.বি মারিয়া-১’র ৯ জেলে উদ্ধারের খবর পাওয়া গেলেও নিখোঁজ ৬ ট্রলার ও শতাধিক জেলের কোন সন্ধান পাওয়া যায়নি। নিখোঁজ জেলেদের মধ্যে শরণখোলার শহিদুল ফরাজী, আনোয়ার ফরাজী, কামরুল, কবির হাওলাদার, আশ্রাফুল, আলম মিস্ত্রী, এনামুল, কবির ঘরামী, ইয়াছিন, ডাবলু হাওলাদার, শহিদুল হাওলাদার, ইউনুচ হাওলাদার, বাবুল হাওলাদার, আমগীর ও মোদাচ্ছের হাওলাদারের নাম জানা গেছে। এরা শরণখোলা উপজেলার বিভিন্ন গ্রামের বাসিন্দা। নিখোঁজ ট্রলারসহ জেলেদের উদ্ধারে বিভিন্ন স্থানে যোগাযোগ অব্যাহত রয়েছে বলে শরণখোলা মৎস্য ব্যবসায়ী সমিতির নেতৃবৃন্দ জানিয়েছেন।

মোংলা কোস্টগার্ড পশ্চিম জোনের অপারেশন কমান্ডার লে. জাহিদ আল হাসান জানান, দুবলা ও কচিখালীর ষ্টেশনের কোষ্টগার্ড সদস্যরা গতকাল পটুয়াখালীর ৮ জেলেসহ নুরুল আমিন নামের একটি ফিসিং ট্রলার উদ্ধার করেছে বাকি ট্রলার ও জেলেদের উদ্ধারের চেষ্টা চলছে।