শনিবার, ২৬ নভেম্বর ২০২২ খ্রীষ্টাব্দ | ১২ অগ্রহায়ণ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ



কুলাউড়া-শাহবাজপুর রেললাইন চালু হলে দু’দেশের ব্যবসা বাণিজ্য আরও বাড়বে: সিলেটে হর্ষবর্ধন শ্রিংলা
ডেস্ক রিপোর্ট

ডেস্ক রিপোর্ট



বিজ্ঞাপন

ঢাকায় নিযুক্ত ভারতীয় হাইকমিশনার হর্ষবর্ধন শ্রিংলা বলেছেন, সুসময় ও দুঃসময়ে সব সময় ভারত বাংলাদেশের পাশে আছে, পাশে থাকবে। ভারত ও বাংলাদেশ দ্রুত উন্নয়নের দেশ হিসাবে নিজেদের মধ্যে স্থান করে নিয়েছে। দুই দেশের প্রধানমন্ত্রীর নেতৃত্বে উভয় দেশের সম্পর্ক আরও মর্যাদায় পৌঁছেছে। সাম্প্রতিক সময়ে বাংলাদেশের আর্থসামাজিক উন্নয়নে অভূতপূর্ব উন্নয়ন সাধিত হয়েছে। চরমপন্থি ধারণাকে দৃঢ়ভাবে প্রত্যাখ্যান করা বাংলাদেশের জন্য বিরাট সফলতা। এতে প্রতিবেশী দেশ হিসাবে ভারত খুবই গর্বিত।

১৪ সেপ্টেম্বর শুক্রবার সিলেটে আন্তর্জাতিক কৃষ্ণ ভাবনামৃত সংঘের (ইসকন) মন্দিরে ভারতীয় হাইকমিশনের অর্থায়নে অভয়চরন ভয়েস ছাত্রাবাসের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন।

হর্ষবর্ধন শ্রিংলা বলেন, ভারত ও বাংলাদেশ অনেক উন্নয়নমূলক কাজ করেছে। কুলাউড়া-শাহবাজপুর রেললাইন সংস্কার কাজ শুরু হয়েছে। এটি চালু হলে দু’দেশের ব্যবসা বাণিজ্য আরও বাড়বে।

ভারতীয় রাষ্ট্রদূত বলেন, চলতি বছরের শুরুতে সিলেটে সহকারী ভারতীয় হাইকমিশনের অফিস খোলা হয়েছে। শিগগির হাইকমিশনের কর্মকর্তারা সিলেটে যোগদান করবেন। এটি চালু হলে সিলেটের মানুষকে আর ভিসা পেতে অসুবিধা হবে না।

তিনি বলেন, রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর ও কাজী নজরুল ইসলামের সাহিত্য কর্ম আমাদের দু’দেশের সম্পর্ককে আরও সুদৃঢ় করেছে। এতে বাংলা সাহিত্য কর্ম আরও সমৃদ্ধ হচ্ছে। ভালো প্রতিবেশী দেশ হিসাবে দু’দেশ মর্যাদার আসনে ঠাই করে নিয়েছে। বাংলাদেশ সত্যিকার অর্থে সোনার বাংলা হিসাবে গড়ে উঠুক এই প্রত্যাশা করি।

ইসকন বাংলাদেশের সভাপতি সাবেক ডিআইজি এসআর বারৈ’র সভাপতিত্বে দেবামৃত নিতাই দাস ও ডা. সত্য সুন্দরী দেবী দাসীর পরিচালনায় অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (শাবি) উপাচার্য অধ্যাপক ফরিদ উদ্দিন আহমেদ, আন্তর্জাতিক কৃষ্ণভাবনামৃত সংঘ (ইসকন) বাংলাদেশের সহ-সভাপতি শ্রীমদ ভক্তিপ্রিয়ম গধাঘর গোস্বামী মহারাজ, ইসকন বাংলাদেশের সাধারণ সম্পাদক শ্রীপদ চারুচন্দ্র দাস ব্রহ্মচারী ও কেন্দ্রীয় স্বেচ্ছাসেবকলীগের নেতা সুব্রত পুরকায়স্থ।