সোমবার, ৪ মার্চ ২০২৪ খ্রীষ্টাব্দ | ২১ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ



                    চাইলে বিজ্ঞাপন দিতে পারেন

মৌলভীবাজার-১ আসনে মনোনয়নপত্র জমা দিলেন যারা



বিজ্ঞাপন

নিজস্ব প্রতিবেদক:: আসন্ন দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে মৌলভীবাজার-১ (বড়লেখা-জুড়ী) আসনে আওয়ামীলীগের প্রার্থীসহ ৫ জন প্রার্থী মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন। বৃহস্পতিবার (৩০ নভেম্বর) দুপুরে মনোনয়নপত্র জমা দেওয়ার শেষ দিনে এসব প্রার্থীরা সংশ্লিষ্ট আসনের রিটার্নিং কর্মকর্তার কাছে মনোনয়নপত্র জমা দেন।

বেলা আড়াইটার দিকে সহকারী রিটার্নিং কর্মকর্তা ও বড়লেখা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সুনজিত কুমার চন্দের কাছে মনোনয়নপত্র জমা দেন পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তন মন্ত্রী মো. শাহাব উদ্দিন।

এসময় মন্ত্রীর সঙ্গে বড়লেখা উপজেলা আওয়ামীলীগের সিনিয়র সহসভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা সিরাজ উদ্দিন, জুড়ী উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি মাসুক মিয়া, বড়লেখা উপজেলা আওয়ামী সাধারণ সম্পাদক রফিকুল ইসলাম সুন্দর, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক বিবেবকান্দ দাস নান্টু, জুড়ী উপজেলা আওয়ামীলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক রিংকু রঞ্জন দাস, বড়লেখা উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক পৌরমেয়র আবুল ইমাম মো.কামরান চৌধুরী ও উপজেলা চেয়ারম্যান সোয়েব আহমদ, উপজেলা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক ভাইস চেয়ারম্যান তাজ উদ্দিন প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

এর আগে বেলা দুইটায় সহকারী রিটার্নিং কর্মকর্তা ও বড়লেখা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার কাছে মনোনয়নপত্র জমা দেন জাতীয় পার্টির মনোনীত লাঙ্গলের প্রার্থী আহমদ রিয়াজ। এসময় উপজেলা জাতীয় পার্টির সহসভাপতি সুনাম উদ্দিন, ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক আলী আজাদ, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক সুলেমান আহমদ প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

এদিকে বৃহস্পতিবার (৩০ নভেম্বর) দুপুরে সহকারী রিটার্নিং কর্মকর্তা ও জুড়ী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা রঞ্জন চন্দ্র দে’র কাছে মনোনয়নপত্র জমা দেন তৃণমূল বিএনপি মনোনীত প্রার্থী মো. আনোয়ার হোসেন, স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে বাংলাদেশ আনজুমানে আল ইসলাহ নেতা মো. ময়নুল ইসলাম ও ফারুক আহমদ।

প্রসঙ্গত, নির্বাচন কমিশন ঘোষিত তফসিল অনুযায়ী, নির্বাচনে প্রার্থীদের মনোনয়নপত্র যাচাই-বাছাই হবে ১ থেকে ৪ ডিসেম্বর, মনোনয়ন আপিল ও নিষ্পত্তি ৬ থেকে ১৫ ডিসেম্বর, প্রার্থিতা প্রত্যাহারের শেষ তারিখ ১৭ ডিসেম্বর। প্রতীক বরাদ্দ হবে ১৮ ডিসেম্বর এবং নির্বাচনী প্রচার-প্রচারণা ১৮ ডিসেম্বর থেকে ৫ জানুয়ারি সকাল ৮টা পর্যন্ত চলবে। ব্যালট পেপারে ভোটগ্রহণ হবে ৭ জানুয়ারি।