রবিবার, ২১ জুলাই ২০২৪ খ্রীষ্টাব্দ | ৬ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ



                    চাইলে বিজ্ঞাপন দিতে পারেন

বানিয়াচং-নবীগঞ্জ সড়কে গণডাকাতি



বিজ্ঞাপন

নিউজ ডেস্ক: হবিগঞ্জের বানিয়াচং-নবীগঞ্জ সড়কে গণডাকাতি সংঘটিত হয়েছে। ডাকাতরা ১৫-২০টি গাড়ি থামিয়ে চালক ও যাত্রীদের মারধর করে নগদ টাকা, মোবাইল ফোনসহ মালামাল লুট করেছে।

বুধবার (২৪ ফেব্রুয়ারি) রাতে কাগাপাশা ও সুটকী ব্রিজের মধ্যবর্তীস্থলে এ গণডাকাতি সংঘটিত হয়।

ডাকাতদের হামলায় আহত আজমিরীগঞ্জের শিবপাশা গ্রামের আরজ আলীর ছেলে তাউস মিয়া (৩৬) ও সিলেটের গোলাপগঞ্জ উপজেলার ভাদেশ্বর দক্ষিণবাগ গ্রামের বশির উদ্দিনের ছেলে নানু মিয়া (৫৫) জানান, তারা সিলেট থেকে মিনিট্রাক (সিলেট মেট্রো-ন ১১-১৪৮০) নিয়ে আজমিরীগঞ্জ যাচ্ছিলেন। রাত ১০টার দিকে কাগাপাশা ও সুটকী ব্রিজের মধ্যবর্তী স্থানে পৌঁছালে দেখতে পান রাস্তার ওপর সিগন্যাল লাইট জ্বালানো অবস্থায় একটি মোটরসাইকেল ও একটি টমটম উল্টে পড়ে আছে।


তারা আরও জানান, গাড়িগুলোর কাছে যেতেই ১০-১৫ জন মুখোশধারী ডাকাত রামদা, লোহার পাইপ, লাঠি ইত্যাদি দেশীয় অস্ত্র নিয়ে রাস্তার ঢালু থেকে উঠে এসে তাদের গাড়িতে হামলা করে। তাদের গাড়ি থেকে নামিয়ে মারধর করে দুইটি মোবাইল ফোন ও নগদ এক লাখ ১২ হাজার টাকা ছিনিয়ে নেয়।

পরে তাদেরকে ঢালুতে নিয়ে হাত-পা-মুখ বেঁধে ফেলে রাখে। ওইখানে তারা আরও কয়েকজনকে একই অবস্থায় ফেলে রাখতে দেখেন। ডাকাতরা ঘণ্টাব্যাপী সড়কের দুইদিক থেকে আসা প্রাইভেটকার, সিএনজি, মোটরসাইকেলসহ প্রায় ১৫-২০ টি গাড়ি থামিয়ে গণডাকাতি করে বলে তারা জানান।

তারা বলেন, ডাকাতরা চলে যাওয়ার পর তারা একে-অপরের সহযোগিতায় শরীরের বাঁধন খুলে ঘটনাস্থল থেকে এসে বানিয়াচং থানায় অবহিত করেন এবং বানিয়াচং উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসা নেন।

বানিয়াচং সদরের ১নং ইউনিয়ন পরিষদের ৩নং ওয়ার্ডের মেম্বার নাসির উদ্দীন ফেসবুকে পোস্ট দিয়ে ডাকাতির ঘটনার কথা লিখেন। খবর পেয়ে বানিয়াচং থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এমরান হোসেনের নেতৃত্বে থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে ছুটে যায়।

বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন বানিয়াচং থানার ওসি মোহাম্মদ এমরান হোসেন।

তিনি জানান, নবীগঞ্জ-বানিয়াচং সড়কের একটি অংশে সড়ক ভাঙা রয়েছে। সেই ভাঙা অংশে গাড়িগুলো ধীরগতিতে চলার কারণে প্রায়ই ডাকাতিসহ দুর্ঘটনা ঘটে থাকে।