মঙ্গলবার, ৫ মার্চ ২০২৪ খ্রীষ্টাব্দ | ২২ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ



                    চাইলে বিজ্ঞাপন দিতে পারেন

হবিগঞ্জে ২ কোটি টাকার মাদকদ্রব্য ধ্বংস



বিজ্ঞাপন

ডেস্ক রিপোর্ট: হবিগঞ্জের চুনারুঘাট, মাধবপুর ও মৌলভীবাজারের শ্রীমঙ্গল উপজেলা থেকে গত আড়াই বছরে জব্দ প্রায় পৌনে দুই কোটি টাকা মূল্যের মাদকদ্রব্য ধ্বংস করেছে বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ (বিজিবি)।

সোমবার ‘মাদককে না বলুন’ শ্লোগান লেখা কয়েকটি পাত্রে মদ ঢেলে ধ্বংসকরণ অনুষ্ঠানের উদ্বোধন করা হয়। পরে রোলার দিয়ে পিষে ও আগুনে পুড়িয়ে মাদকদ্রব্য ধ্বংস করা হয়।

সোমবার (৭ ডিসেম্বর) রাত ১০টায় হবিগঞ্জের ৫৫ ব্যাটালিয়নের অধিনায়ক এসএনএম সামীউন্নবী চৌধুরী এসব তথ্য নিশ্চিত করেন।


এর আগে দুপুরে বিজিবি হবিগঞ্জ ব্যাটালিয়নের প্রশিক্ষণ মাঠে আনুষ্ঠানিকভাবে একি কোটি ৭৯ লাখ ৮২ হাজার ২৩৩ টাকার মাদকদ্রব্য ধ্বংস করা হয়।

এসময় ৫৫ ব্যাটালিয়নের অধিনায়ক এসএনএম সামীউন্নবী চৌধুরী, হবিগঞ্জের জেলা প্রশাসক (ডিসি) মোহাম্মদ কামরুল হাসানসহ পুলিশ ও বিভিন্ন উপজেলা প্রশাসনের কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

বিজিবি জানায়, ২০১৮ সালের ১ জুলাই থেকে চলতি বছরের ৩ ডিসেম্বর পর্যন্ত জেলার চুনারুঘাট, মাধবপুর ও শ্রীমঙ্গল উপজেলায় বাংলাদেশ-ভারত সীমান্ত থেকে চার হাজার ৩০৩ বোতল ফেনসিডিল, চার হাজার ৫৭৮ বোতল মদ, তিন হাজার ৫৩ কেজি গাঁজা, সাত হাজার ৫৭০ পিস ইয়াবা ও ৬১৩ বোতল বিয়ারসহ দুই কোটি ১৭ লাখ ১১ হাজার ৫২৩ টাকা মূল্যের মাদকদ্রব্য জব্দ করা হয়।

এর মধ্যে সোমবার তিন হাজার ৬৭৬ বোতল ফেনসিডিল, চার হাজার ৫৩৬ বোতল মদ, দুই হাজার ৪৮৫ কেজি গাঁজা, দুই হাজার ৭১৭ পিস ইয়াবা ও ৫৯৬ বোতল বিয়ার ধ্বংস করা হলো।

৫৫ ব্যাটালিয়নের অধিনায়ক এসএনএম সামীউন্নবী চৌধুরী জানান, শুধু হবিগঞ্জের মাধবপুর ও চুনারুঘাট উপজেলা থেকে ৬২৭ বোতল ফেনসিডিল, ২২ বোতল মদ, ৫৬৭ কেজি গাঁজা, চার হাজার ৮৫৩ পিস ইয়াবা, ১৭ বোতল বিয়ারসহ নানা ধরনের মাদকদ্রব্য জব্দ করেছে বিজিবি। এই পরিমাণ মাদকের ব্যাপারে তারা ১১১টি মামলা দায়ের ও ১৫৩ জনকে গ্রেপ্তার করেছে।