শুক্রবার, ৯ ডিসেম্বর ২০২২ খ্রীষ্টাব্দ | ২৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ



গোলাপগঞ্জে বীর মুক্তিযোদ্ধা আমির উদ্দিন সাদেক আর নেই, দাফন সম্পন্ন
গোলাপগঞ্জ প্রতিনিধি

গোলাপগঞ্জ প্রতিনিধি



বিজ্ঞাপন

সিলেটের গোলাপগঞ্জে বীর মুক্তিযোদ্ধা আমির উদ্দিন সাদেক আর নেই। ২৭ আগস্ট সোমবার রাত ১০টায় সিলেট নর্থ ইস্ট মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি শেষ নিশ্বাস ত্যাগ করেন। দীর্ঘদিন ধরে দুরারোগ্য ব্যাধিতে ভুগছেন ছিলেন এই প্রবীণ রাজনীতিবিদ।

মৃত্যুকালে তাঁর বয়স হয়েছিল ৭৫ বছর। মৃত্যুকালে তিনি স্ত্রী, ২ ছেলে, ৫ মেয়েসহ বহু আত্মীয়স্বজন ও গুণগ্রাহী রেখে গেছে।

এদিকে মঙ্গলবার বেলা ২টায় ঢাকাদক্ষিণ বহুমুখী উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে রাষ্ট্রীয় মর্যাদায় জানাজা শেষে পারিবারিক কবর স্থানে তাকে দাফন করা হয়। জানাজার নামাজে হাজারো মানুষের ঢল নামে।

প্রবীণ এই রাজনীতিবিদের জানাজায় অংশগ্রহণ করেন শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ এমপি। জানাজা নামাজের পূর্বে তাঁর জীবনী নিয়ে সংক্ষিপ্ত আলোচনায় শিক্ষামন্ত্রী বলেন, বীর মুক্তিযোদ্ধা আমির উদ্দিন সাদেক ছিলেন বহু গুণ ও প্রতিভার অধিকারী ছিলেন। জীবনের বেশীরভাগ সময় তিনি মানুষের কল্যাণে কাজ করে গেছেন। তাঁর মতো একজন অভিভাবকের মৃত্যুতে গোলাপগঞ্জের সর্বক্ষেত্রে যে শূন্যতার সৃষ্টি হয়েছে তা অপূরণীয়। রাজনৈতিক অঙ্গনে তিনি ছিলেন একজন আদর্শ ও নীতিবান ব্যক্তিত্ব। সবসময় তিনি ন্যায় ও সত্যের পথে মত পোষণ করে আলোকিত সমাজ গঠনের কাজে নিয়োজিত ছিলেন। একটি সুন্দর ও আদর্শ সমাজ গঠনে আমির উদ্দিন সাদেকের মতো গুণীজনের প্রয়োজন সবসময় রয়েছে।
ঢাকাদক্ষিণ বহুমুখী উচ্চ বিদ্যালয় ও কলেজসহ বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের উন্নয়নে তাঁর নিরলস প্রচেষ্টার কথা উল্লেখ করে শিক্ষামন্ত্রী বলেন, সাদেক ভাইয়ের স্বপ্ন পূরণে কোন অসম্পূর্ণ কাজ থাকলে আমি নিজ উদ্যোগে তা দ্রুত বাস্তবায়ন করার চেষ্টা করবো।

এ সময় অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন, সিলেট জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সাবেক এমপি শফিকুর রহমান চৌধুরী, গোলাপগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান এডভোকেট ইকবাল আহমদ চৌধুরী, ঢাকাদক্ষিণ বহুমুখী উচ্চ বিদ্যালয় ও কলেজের প্রিন্সিপাল রেজাউল আমীন, মরহুমের ছোট ভাই শফিক উদ্দিন, উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা সন্তান কমান্ডের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি গোলাম দস্তগীর খান ছামিন, ঢাকাদক্ষিণ ডিগ্রী কলেজের সাবেক এজিএস মনসুর আহমদ।

উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ নেজামে ইসলাম পার্টির সভাপতি এডভোকেট মাওলানা আব্দুর রকিব, বিয়ানীবাজার উপজেলা চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা আতাউর রহমান, সিলেট জেলা দক্ষিণ জামায়াতের আমীর মাওলানা হাবিবুর রহমান, সিলেট কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার বদরুল ইসলাম শোয়েব, জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক এডভোকেট নিজাম উদ্দিন, অধ্যাপক সুজাত আলী রফিক, এডভোকেট নাছির উদ্দিন খান, সাংগঠনিক সম্পাদক সাবেক উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান হুমায়ুন ইসলাম কামাল, মোহাম্মদ আলী দুলাল, দপ্তর সম্পাদক জগলু চৌধুরী, জেলা বিএনপির সহ সভাপতি মহিউস সুন্নাহ চৌধুরী নার্জিস, সিলেট মহানগর আওয়ামী লীগের সহ সভাপতি আব্দুল খালিক, বিয়ানীবাজার উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আব্দুল হাছিব মনিয়া, গোলাপগঞ্জ সরকারি এমসি একাডেমী স্কুল ও কলেজের প্রিন্সিপাল মনসুর আহমদ, গোলাপগঞ্জ পৌরসভার ভারপ্রাপ্ত মেয়র হেলালুজ্জামান হেলাল, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক রফিক আহমদ, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মদ শরীফুল ইসলাম, জেলা আওয়ামী লীগ নেতা সৈয়দ মিছবাহ উদ্দিন, উপজেলা বিএনপির ভারপ্রাপ্ত সভাপতি ডা. আব্দুল গফুর, ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক, উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান নোমান উদ্দিন মোরাদ, সিলেট পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি-১ এর সচিব গোলাপগঞ্জ প্রেসক্লাব সভাপতি আব্দুল আহাদ, যুক্তরাজ্য যুবলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আমিনুল ইসলাম রাবেল, গোলাপগঞ্জ প্রেসক্লাব সেক্রেটারি মাহফুজ আহমদ চৌধুরী প্রমুখ।