রবিবার, ১৯ মে ২০২৪ খ্রীষ্টাব্দ | ৫ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ



                    চাইলে বিজ্ঞাপন দিতে পারেন

বড়লেখায় সুষ্ঠু ভোট নিয়ে শঙ্কা
উপজেলা পরিষদ নির্বাচন

উপজেলা পরিষদ নির্বাচন



বিজ্ঞাপন

এ.জে লাভলু:: মৌলভীবাজারের বড়লেখা উপজেলায় প্রথম ধাপে বুধবার (৮ মে) ভোটগ্রহণ হবে। তবে নির্বাচন সুষ্ঠু হবে কি-না তা নিয়ে সাধারণ ভোটারদের মধ্যে একধরনের শঙ্কা কাজ করছে। কারণ প্রশাসন ৬৯টি ভোটকেন্দ্রের মধ্যে ২৯টি কেন্দ্রকে অধিক ঝুঁকিপূর্ণ হিসাবে চিহ্নিত করেছে। তবে নির্বেঘ্নে ভোটপ্রদানের লক্ষ্যে কেন্দ্রগুলোতে নিরাপত্তা ব্যবস্থা জোরদার করা হয়েছে। পাশাপাশি সবধরনের প্রস্তুতি নেওয়া হয়েছে বলে সংশ্লিষ্টরা জানিয়েছেন।

উপজেলার বিভিন্ন এলাকা ঘুরে স্থানীয় ভোটারদের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে ৪ জন প্রার্থী থাকলেও মূলত ঘোড়া, মোটরসাইকেল ও আনারসের মধ্যে লড়াই হবে। তবে এসব ভোটাররা তাদের পছন্দের প্রার্থীকে ভোট দেবেন বলে জানিয়েছেন। তারা জানান, তারা চান শান্তিপূর্ণ পরিবেশে ভোট দিতে। কিন্তু সুষ্ঠু পরিবেশে ভোটগ্রহণ হবে কি-না কিংবা একই দলের চারজন প্রার্থী হওয়ায় তাদের মধ্যে কোনো ঝামেলা হবে কি-না তা নিয়ে তাদের মধ্যে ভয় কাজ করছে। অবশ্য পরিবেশ শান্তিপূর্ণ না হলে অনেকেই ভোট দেবেন না বলে জানিয়েছেন।

জানা গেছে, উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে লড়ছেন বর্তমান উপজেলা চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক সোয়েব আহমদ (ঘোড়া প্রতীক), উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান রফিকুল ইসলাম সুন্দর (আনারস প্রতীক), আওয়ামী লীগ নেতা দক্ষিণভাগ দক্ষিণ ইউপি চেয়ারম্যান আজির উদ্দিন (মোটরসাইকেল প্রতীক) ও তার ছেলে ছাত্রলীগ নেতা মাসুম আহমদ হাসান (উট প্রতীক)।
এছাড়া ভাইস চেয়ারম্যান পদে লড়ছেন বর্তমান উপজেলা পরিষদ ভাইস চেয়ারম্যান ও উপজেলা যুবলীগের সভাপতি তাজ উদ্দিন (টিয়াপাখি), উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ও সাবেক উপজেলা পরিষদ ভাইস চেয়ারম্যান বিবেকানন্দ দাস নান্টু (টিউবওয়েল), তালামীয নেতা শিক্ষক সামছুল ইসলাম (তালা) এবং জমিয়ত নেতা আবিদুর রহমান পেয়েছেন (চশমা)। এদিকে নারী ভাইস চেয়ারম্যান পদে একমাত্র প্রার্থী হওয়ায় ভাইস চেয়ারম্যান রাহেনা বেগম হাসনাকে ইতিমধ্যে নির্বাচিত ঘোষণা করেছেন সংশ্লিষ্ট জেলা রিটার্নিং কর্মকর্তা।

উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা ও সহকারি রিটার্নিং কর্মকর্তা দীপক কুমার রায় জানান, শান্তিপূর্ণভাবে ভোটগ্রহণের লক্ষ্যে কেন্দ্রগুলোতে নিরাপত্তা ব্যবস্থা জোরদারের পাশাপাশি সবধরনের প্রস্তুতি নেওয়া হয়েছে।

বড়লেখা থানার ওসি সঞ্জয় চক্রবর্তী জানান, উপজেলার প্রত্যেকটি ভোট কেন্দ্রকে ঝুঁকিপূর্ণ কেন্দ্র হিসেবে গুরুত্ব দেওয়া হচ্ছে। তবে এরমধ্যে ২৯টি ভোট কেন্দ্রকে অধিক ঝুঁিকপুর্ণ চিহ্নিত করে নিরাপত্তা জোরদারের ব্যবস্থা নিয়েছে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীসহ নির্বাচন কমিশন।

একটি পৌরসভা ও ১০টি ইউনিয়ন পরিষদ নিয়ে গঠিত বড়লেখা উপজেলায় মোট ভোটার সংখ্যা ১ লাখ ৯৯ হাজার ৯৬৫টি।