রবিবার, ২১ জুলাই ২০২৪ খ্রীষ্টাব্দ | ৬ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ



                    চাইলে বিজ্ঞাপন দিতে পারেন

হবিগঞ্জে নিজ বাড়িতে স্কুলছাত্রীকে কুপিয়ে জখম



বিজ্ঞাপন

নিউজ ডেস্ক: হবিগঞ্জে নিজ ঘরে স্কুলছাত্রীকে কুপিয়ে জখম করেছে দুর্বৃত্তরা। গুরুতর আহত অবস্থায় তাকে সিলেট মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। বুধবার (১০ মার্চ) ভোরে বানিয়াচং উপজেলার ইকরাম গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

আহত স্কুলছাত্রী বানিয়াচং উপজেলার ইকরাম গ্রামের মৃত মোস্তফা মিয়ার মেয়ে মারজানা আক্তার (১৬)। সে স্থানীয় একটি স্কুলে অষ্টম শ্রেণিতে পড়ে।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, মারজানা রাতে ঘরে একা ঘুমিয়ে ছিল। বুধবার ভোরে একদল দুর্বৃত্ত ঘরে ঢুকে তাকে কুপিয়ে জখম করে। সকালে পাশের বাড়ির একজন তাকে ডাকতে গিয়ে রক্তাক্ত অবস্থায় দেখতে পায়। এ সময় তিনি চিৎকার শুরু করলে আশপাশের লোকজন এগিয়ে আসে। তাকে উদ্ধার করে হবিগঞ্জ সদর হাসপাতালে পাঠায়। তার অবস্থার অবনতি হলে সকাল সাড়ে ১০টার দিকে তাকে সিলেটে মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়।


আহত মারজানার মা মাধু মালা জানান, তার বড় মেয়ে ফারজানাকে তিন বছর আগে একই এলাকার কয়েকজন হত্যা করে। সেই হত্যা মামলার সাক্ষী ছিল ছোট মেয়ে মারজানা। আসামিরা মামলা তুলে নেওয়ার জন্য বেশ কিছুদিন ধরে ভয়-ভীতি দেখিয়ে আসছে। তারাই ছোট মেয়েকে হত্যার উদ্দেশ্যে কুপিয়ে জখম করেছে।

স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুল কদ্দুছ শামীম জানান, জমিজমা নিয়ে দীর্ঘদিন ধরে তাদের পারিবারিক বিরোধ চলে আসছে। ধারণা করা হচ্ছে, সেই বিরোধের জের ধরে এ ঘটনা ঘটেছে।

হবিগঞ্জ সদর হাসপাতালের জরুরি বিভাগের চিকিৎসক ডা. আাবিদুর রেজা জানান, মাথার আঘাত গুরুতর এবং প্রচুর রক্তক্ষরণ হওয়ায় তাকে সিলেটে রেফার করা হয়েছে।

বানিয়াচং সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার শেখ মো. সেলিম জানান, খবর পেয়ে আমরা হাসপাতালে গিয়ে উন্নত চিকিৎসার জন্য তাকে সিলেটে পাঠিয়েছি। আশা করি শিগগিরই ঘটনার রহস্য উদঘাটন করতে পারব।