শনিবার, ৩ ডিসেম্বর ২০২২ খ্রীষ্টাব্দ | ১৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ



জাতীয় ঐক্যের ফল শূন্য, শূন্য প্লাস শূন্য ইজ ইকুয়েলটু শূন্য: দিরাইয়ে অর্থমন্ত্রী
ডেস্ক রিপোর্ট

ডেস্ক রিপোর্ট



বিজ্ঞাপন

অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত বলেছেন, সব দলের অংশগ্রহণে সাংবিধানিকভাবে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। বর্তমান সংসদে প্রতিনিধিত্বকারী দলের সংসদ সদস্যদের সমন্বয়ে নির্বাচনকালীন সরকার ঘঠন করা হবে। এখানে অন্য কারো থাকার সুযোগ নেই। নিরপেক্ষ নির্বাচনের পরীক্ষা এই দেশে হয়ে গেছে।

৩০ সেপ্টেম্বর রোববার দুপুরে সুনামগঞ্জের দিরাই পৌর সদরে বাংলাদেশ ফিমেইল একাডেমি আয়োজিত ‘মেয়েদের শিক্ষা ও ক্ষমতায়ন’ শীর্ষক এক সেমিনার শেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি এসব কথা বলেন।

জাতীয় ঐক্যের ফল শূন্য উল্লেখ করে অর্থমন্ত্রী বলেন- জাতীয় ঐক্য গড়তে চায় তারা কারা? এরা সবাই শূন্য, শূন্য প্লাস শূন্য ইজ ইকুয়েলটু শূন্য। এসব দিয়ে কিছুই হবে না।

বিএনপির মতো একটি বড় দলকে নির্বাচনে আনার বিষয়ে সরকারের কোনো বিশেষ উদ্যোগ আছে কী-না জানতে চাইলে অর্থমন্ত্রী বলেন- ‘কোনো বিশেষ উদ্যোগ নেই। বিএনপি এক সময় বড় দল ছিল, এখন আছে কি-না আমার সন্দেহ আছে।

বাংলাদেশ ফিমেইল একাডেমির প্রতিষ্ঠাতা সদস্য ও সিলেট-৩ আসনের সাংসদ মাহমুদুস সামাদ চৌধুরীর সভাপতিত্বে ও একাডেমীর প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি জামিল চৌধুরীর পরিচালনায় সেমিনারে অর্থমন্ত্রী বলেন, জনসেবায় মানুষকে উদ্বুদ্ধ করতে হবে। এই দেশের মানুষ ভালো, তাদের কোনো কিছুর সুযোগ দিলে তারা পথ বের করে নেয়, যে কোনো ভালো কাজ তারা করতে পারে।

শিক্ষার বিষয়ে প্রধানমন্ত্রীর বিশেষ কিছু উদ্যোগের কথা উল্লেখ করে অর্থমন্ত্রী বলেন, ‘প্রধারমন্ত্রীর বিশেষ কিছু চিন্তাভাবনা আছে। কিন্তু আমি তাঁর সব কথা রাখতে পারি না। তার মানে এই নয় যে, এ সব চিন্তাভাবনা ভালো নয়। সমস্যা হচ্ছে টাকার। প্রধানমন্ত্রী চান একেবারে গ্রাজুয়েশন পর্যন্ত শিক্ষাকে বিনামূল্যে করে দিতে। তাঁর কথা হলো মানুষ শিক্ষিত হলে মানসিকতায় পরিবর্তন আসে, দেশপ্রেম আসে। যে কোনো কাজ তারা করতে পারে। আমি বলেছি, এটা ধীরে ধীরে করতে হবে।’

সেমিনারে বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন জাতিসংঘে বাংলাদেশের সাবেক স্থায়ী প্রতিনিধি ড.এ কে আবদুল মোমেন, সিলেট এম এ জি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের পরিচালক বিগ্রেডিয়ার জেনারেল মাহবুবুল হক, সুনামগঞ্জে স্থানীয় সরকার বিভাগের উপপরিচালক মো, এমরান হোসেন, সুনামগঞ্জের পুলিশ সুপার মো. বরকতুল্লাহ খান। সেমিনারে আরও বক্তব্য দেন, দিরাই উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা শরিফুল আলম, নারী ভাইস চেয়ারম্যান ছবি চৌধুরী, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার বেলায়েত হোসেন সিকদার, ফিমেই একাডেমির প্রতিষ্ঠাতা সদস্য প্রবাসী কায়েছ চৌধুরী, পলা ইসলাম, আবদুল মোতালেব। স্বাগত বক্তব্য রাখেন অধ্যক্ষ নাজমা বেগম।