মঙ্গলবার, ২৯ নভেম্বর ২০২২ খ্রীষ্টাব্দ | ১৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ



বড়লেখায় কিশোরকে পাশবিক নির্যাতনের অভিযোগে দুই যুবক গ্রেপ্তার



বিজ্ঞাপন

নিজস্ব প্রতিবেদক:: মৌলভীবাজারের বড়লেখায় এক কিশোরকে পাশবিক নির্যাতনের অভিযোগে করা মামলায় দুই যুবককে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। গত সোমবার দিবাগত রাতে (২১ নভেম্বর) পুলিশ তাদের গ্রেপ্তার করেছে।

গ্রেপ্তারকৃতরা হচ্ছে, উপজেলার দক্ষিণ শাহবাজপুর ইউনিয়নের সুজাউল গ্রামের রুনু মিয়ার ছেলে রাসেল আহমদ (২২) ও উত্তর শাহবাজপুর ইউনিয়নের সায়পুর গ্রামের আব্দুল আজিজের ছেলে কয়ছর আহমদ (১৯)। মঙ্গলবার তাদের আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

এদিকে ভুক্তভোগী ওই কিশোরকে স্বাস্থ্য পরীক্ষার জন্য মৌলভীবাজার সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

মামলার সূত্রে জানা গেছে, গত ২০ নভেম্বর রাত সাড়ে ৭টায় বিদ্যুতের কাজে সহযোগিতা করার কথা বলে কয়ছর আহমদ ওই কিশোরকে (১৬) দক্ষিণ শাহবাজপুর ইউনিয়নের রাসেল আহমদের কাছে নিয়ে যায়। এরপর রাত আনুমানিক সাড়ে ৮টার দিকে রাসেল আহমদ ওই কিশোরকে ভয়ভীতি দেখিয়ে স্থানীয় আল্লাদাদ চা বাগানস্থ লংকা টিলায় নিয়ে তার ইচ্ছার বিরুদ্ধে জোরপূর্বক ধর্ষণ করে। পরে তাকে (ধর্ষণের শিকার কিশোর) অন্ধকারের মধ্যে এলাকার একটি রাস্তায় ফেলে যায়। এসময় পথ হারিয়ে কিশোর কান্নাকাটি করছিল। স্থানীয় লোকজন বিষয়টি বুঝতে পেরে তাকে উদ্ধার করে তার পরিবারের কাছে পৌঁছে দেন। পরদিন সোমবার (২১ নভেম্বর) বিকেলে বড়লেখা উপজেলা স্বাস্থ্য কমেপ্লেক্সে নিয়ে গেলে তাকে (ধর্ষণের শিকার কিশোর) প্রাথমিক চিকিৎসা দেওয়া হয়। ওইদিন দিবাগত রাতে ধর্ষণের শিকার কিশোরের বাবা ধর্ষণকারী রাসেল আহমদকে ১ নম্বর আসামি ও সহযোগিতাকারী কয়ছর আহমদকে ২ নম্বর আসামি করে বড়লেখা থানায় একটি মামলা করেন। মামলার পরিপ্রেক্ষিতে রাতেই শাহবাজপুর তদন্ত কেন্দ্রের পুলিশ পরিদর্শক (ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা) মো. রবিউল হকের নেতৃত্বে একদল পুলিশ অভিযান চালিয়ে অভিযুক্ত দুজনকে পৃথক স্থান থেকে গ্রেপ্তার করে।

শাহবাজপুর তদন্ত কেন্দ্রের পুলিশ পরিদর্শক (ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা) মো. রবিউল হক মঙ্গলবার (২২ নভেম্বর) সন্ধ্যায় বলেন, অভিযুক্ত দুজনকে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে। ভুক্তভোগী কিশোরকে স্বাস্থ্য পরীক্ষার জন্য মৌলভীবাজার সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।