বৃহস্পতিবার, ২১ সেপ্টেম্বর ২০২৩ খ্রীষ্টাব্দ | ৬ আশ্বিন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ



যেভাবে সফল ইউটিউবার হয়ে উঠলেন মাসেকুর



বিজ্ঞাপন

বিশেষ প্রতিবেদক :: এক সময় স্বপ্ন দেখতেন সফল ইউটিউবার হবেন। হয়েছেন ঠিক তাই। ইউটিউবে পেয়েছেনও ব্যাপক পরিচিত। তিনি একজন বাংলাদেশী তরুণ। তার নাম মাসেকুর ভূইয়া। তাঁর গ্রামের বাড়ি ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার আখাউড়ায় উপজেলায় এখন সবাই তাকে মাসেক নামেই চেনেন। মাসেকুর এখন বেলজিয়ামে অবস্থান করছেন।

শুরুতেই বিভিন্ন বিনোদনমূলক কনটেন্ট তৈরি করে তা ইউটিউবে ছাড়তেন। কিন্তু না, তাতে কোনো লাভ হয়নি। অবশ্য এতে তিনি ভেঙে পড়েননি; আশাও একেবারে ছেড়ে দেননি। তিনি দেশ ছেড়ে জীবিকার তাগিদে বিদেশে পাড়ি জমান। সেই তিনি এখন বিদেশে সফল ইউটিউবার হিসেবে পরিচিতি পেয়েছেন।

তিনি ইউটিউবে ভ্রমণ ও ইউরোপে যেতে আগ্রহীদের নিয়ে বিভিন্ন পরামর্শমূলক কনটেন্ট তৈরি করছেন। এখন প্রতিদিনই হাজার হাজার দর্শক এসব ভিডিও দেখতে মাসেকের ইউটিউব চ্যানেল Travel The World ভিজিট করছেন। এ পর্যন্ত ৪৩ লাখেরও বেশি মানুষ মাসেকুরে চ্যানেলে ভিডিও দেখেছেন। তার চ্যানেলে প্রায় ৬৯ হাজার সাবস্ক্রাইবার রয়েছেন। সবার সাপোর্ট আর ভালোবাসায় খুব শীঘ্রই তার চ্যানেলে ১ লাখ সাবস্ক্রাইবার পূর্ণ হবে বলে তিনি আশা প্রকাশ করেছেন। বর্তমানে ইউটিউবের পাশাপাশি ফেসবুক থেকে মাসে ৪০-৫০ হাজার টাকা আয় হচ্ছে।

মাসেকুর ভূইয়া জানান, তিনি দেশে যখন ছিলেন, তখন তার স্বপ্ন ছিলো একজন সফল ইউটিউবার হয়ে উঠার। এজন্য তিনি ২০২০ সালে ইউটিউবে এন্টারটেইনমেন্ট কনটেন্ট নিয়ে কাজ শুরু করেন। কিন্তু এতে তিনি জনপ্রিয় হয়ে উঠতে পারেনি। কিন্তু ইউটিউবার হওয়ার আশা একবারে ছেড়ে দেননি। ২০২১ সালে বিদেশে চলে যাওয়ার সিদ্ধান্ত নেন। সিদ্ধান্ত অনুযায়ী তখন ইউরোপের দেশ রোমানিয়াতে পাড়ি দেন। সেখানে গিয়ে চিন্তা করেন আবারো ইউটিউবে ভ্রমণ ও ইউরোপে যেতে আগ্রহীদের নিয়ে বিভিন্ন পরামর্শমূলক কনটেন্ট তৈরি করবেন। যেই ভাবা, সেই কাজ। নতুন করে আবারো ইউটিউবে ‘Travel The World’ নামে একটি চ্যানেল খুলে ভ্লগিং শুরু করেন। মূলত তিনি ভ্রমণ খুব পছন্দ করেন। তাই চ্যানেলের নাম ট্রাভেল দ্যা ওয়াল্ড রেখেছেন।

তিনি জানান, যারা ভ্রমণ পছন্দ করেন এবং বিদেশে আসতে আগ্রহী, আমি তাদের পরামর্শ দিতে এসব ভিডিও তৈরি করতে থাকি। মানুষজনও ভিডিও দেখে উপকৃত হচ্ছেন। এতে ইউরোপে আসতে অনেকে আগ্রহ তৈরি হচ্ছে। এরপর তিনি মাত্র ৩ মাসে ইউটিউব চ্যানেলে ১৫ হাজার সাবস্ক্রাইবার হয়ে যায়। পাশাপাশি বাড়তে থাকে ফেসবুকে ও ইন্সটাগ্রামে ফলোয়ারের সংখ্যা। এখন প্রতিদিনই হাজার হাজার দর্শক তার ভিডিও দেখতে ইউটিউব চ্যানেল ভিজিট করছেন।

মাসেকুর জানান, প্রথমদিকে পরিবার থেকে কারও তেমন সাপোর্ট না পেতেন না। তবে তার বোন সব সময় তাকে সাপোর্ট করেছেন। বর্তমানে তার ইউটিউবের পাশাপাশি ফেসবুক থেকেও আয় হচ্ছে। তবে ইউটিউব থেকে টাকা আয় তার লক্ষ্য নয়। লক্ষ্য হচ্ছে মানুষকে সঠিক তথ্য দেয়া। যাতে তারা বিদেশে গিয়ে যেনো সুন্দর একটি জীবন গড়তে পারেন। সাথে পরিবারকেও খুশি রাখতে পারেন। তা নিয়ে কাজ করা।

তিনি জানান, এখনও পর্যন্ত তিনি (২০২২ সালে) বিভিন্ন দেশ ভ্রমণ করেছেন। তার মধ্যে অন্যতম হলো ইতালি, ফ্রান্স, স্পেন, পর্তুগালসহ আরো কয়েকটি দেশ। মূলত ওই দেশ গুলো সম্পর্কে মানুষকে তথ্য দিয়ে সহযোগিতা করেন। তিনি সব সময় মানুষকে একটা কথাই বলেন, সময়কে মূল্য দিন। ভ্রমণ করুন, সুখে থাকুন। সঠিক তথ্য নিয়ে ইউরোপে আসুন। নিজের স্বপ্নকে বাস্তবে রুপান্তরিত করুন এবং পরিবারকে সুখে রাখুন।