সোমবার, ২৪ জানুয়ারী ২০২২ খ্রীষ্টাব্দ | ১১ মাঘ ১৪২৮ বঙ্গাব্দ



বড়লেখায় আওয়ামী লীগ ৫, বিদ্রোহী ও স্বতন্ত্র ৫



বিজ্ঞাপন

নিজস্ব প্রতিবেদক :: তৃতীয় ধাপে ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে মৌলভীবাজারের বড়লেখা উপজেলার দশটি ইউনিয়ন পরিষদের মধ্যে পাঁচটিতে আওয়ামী লীগের প্রার্থী জয়ী হয়েছেন। বাকি পাঁচটির মধ্যে তিনটিতে বিদ্রোহী প্রার্থী, দুটিতে (বিএনপির একজন) স্বতন্ত্র প্রার্থী জয়ী হয়েছেন।

ঘোষিত ফলাফল অনুযায়ী, উপজেলার বর্ণি ইউপিতে স্বতন্ত্র (বিএনপি) প্রার্থী জয়নাল আবেদীন আনারস প্রতীকে ৩৬৭৩ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন। তাঁর নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী (স্বতন্ত্র) প্রার্থী শামীম আহমদ ঘোড়া প্রতীকে পেয়েছেন ২৮৩৮ ভোট।

দাসেরবাজার ইউপিতে আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী (স্বতন্ত্র) প্রার্থী স্বপন কুমার চক্রবর্তী আনারস প্রতীকে ৩৬৮০ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন। তাঁর নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী আওয়ামী লীগের প্রার্থী জিয়াউর রহমান নৌকা প্রতীকে পেয়েছেন ৩২৭১ ভোট।

নিজবাহাদুরপুর ইউপিতে আওয়ামী লীগের প্রার্থী ময়নুল হক নৌকা প্রতীকে ৫৭৭৭ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন। তাঁর নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী স্বতন্ত্র (বিএনপি) প্রার্থী আলাল উদ্দিন আনারস প্রতীকে পেয়েছেন ৫৩৪২ ভোট।

উত্তর শাহবাজপুর ইউপিতে আওয়ামী লীগের প্রার্থী রফিক উদ্দিন নৌকা প্রতীকে ৫২৩০ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন। তাঁর নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী (স্বতন্ত্র) প্রার্থী আতাউর রহমান আনারস প্রতীকে পেয়েছেন ৫১৮২ ভোট।

দক্ষিণ শাহবাজপুর ইউপিতে আওয়ামী লীগের প্রার্থী নাহিদ আহমদ বাবলু নৌকা প্রতীকে ৫৬৭০ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন। তাঁর নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী স্বতন্ত্র (বিএনপি) প্রার্থী আব্দুল কুদ্দুছ স্বপন আনারস প্রতীকে পেয়েছেন ৪৫১০ ভোট।

বড়লেখা সদর ইউপিতে আওয়ামী লীগের প্রার্থী ছালেহ আহমদ জুয়েল নৌকা প্রতীকে ৭৬৬৩ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন। তাঁর নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী (স্বতন্ত্র) প্রার্থী সিরাজ উদ্দিন ঘোড়া প্রতীকে পেয়েছেন ৪৫১৫ ভোট।

তালিমপুর ইউপিতে আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী (স্বতন্ত্র) প্রার্থী এখলাছুর রহমান আনারস প্রতীকে ৪৮৭১ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন। তাঁর নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী আওয়ামী লীগের প্রার্থী বিদ্যুৎ কান্তি দাস নৌকা প্রতীকে পেয়েছেন ৩৪৯১ ভোট।

দক্ষিণভাগ উত্তর ইউপিতে আওয়ামী লীগের প্রার্থী এনাম উদ্দিন নৌকা প্রতীকে ৩২২১ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন। তাঁর নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী স্বতন্ত্র প্রার্থী জবরুল ইসলাম আনারস প্রতীকে পেয়েছেন ১৯০২ ভোট।

সুজানগর ইউপিতে স্বতন্ত্র প্রার্থী বদরুল ইসলাম আনারস প্রতীকে ৪৭৫০ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন। তাঁর নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী আওয়ামী লীগের প্রার্থী সাহেদুল মজিদ নিকু নৌকা প্রতীকে পেয়েছেন ৪৫০৭ ভোট।

দক্ষিণভাগ দক্ষিণ ইউপিতে আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী (স্বতন্ত্র) প্রার্থী আজির উদ্দিন ঘোড়া প্রতীকে ৯৮৬০ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন। তাঁর নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী আওয়ামী লীগের প্রার্থী সুলতানা কোহিনূর সারোয়ারি নৌকা প্রতীকে পেয়েছেন ৬৪৫৮ ভোট।

উপজেলার ১০ ইউপিতে রোববার (২৮ নভেম্বর) সকাল ৮টা থেকে ৯২টি কেন্দ্রে ভোটগ্রহণ শুরু হয়। দুই-একটি বিচ্ছিন্ন ঘটনা ছাড়াই উৎসবমুখর পরিবেশে বিকেল ৪টা পর্যন্ত চলে ভোটগ্রহণ। গণনা শেষে রাত ১২টায় উপজেলার দশটি ইউনিয়নের ফলাফল ঘোষণা করা হয়। নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে ৪৪ জন ও সংরক্ষিত নারী সদস্য পদে ৯০ জন ও সাধারণ সদস্য পদে ৩৬১ জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বীতা করেন। উপজেলার ১০ ইউনিয়নে মোট ভোটার সংখ্যা ১৬৭৭৮৬। তন্মধ্যে পুরুষ ভোটার সংখ্যা ৮৩৯৮৭ ও নারী ভোটার সংখ্যা ৮৩৭৯৯।

উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা এসএম সাদিকুর রহমান বলেন, অবাধ, সুষ্ঠু নিরপেক্ষ ও শান্তিপূর্ণ পরিবেশে ভোটগ্রহণ হয়েছে। কোথাও কোনো ধরনের সমস্যা হয়নি। মানুষজন শান্তিপূর্ণভাবে তাদের ভোটাধিকার প্রয়োগ করতে পেরেছেন।