বুধবার, ১ ডিসেম্বর ২০২১ খ্রীষ্টাব্দ | ১৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৮ বঙ্গাব্দ



বড়লেখায় এক ইউপিতেই লড়ছেন ১০ চেয়ারম্যান প্রার্থী



বিজ্ঞাপন

এ.জে লাভলু:: তৃতীয় ধাপে ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে মৌলভীবাজারের বড়লেখা উপজেলার ১০ ইউপিতে ভোটগ্রহণ হবে ২৮ নভেম্বর। নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে উপজেলার ১০ ইউপিতে ৪৪ জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বীতা করছেন। এরমধ্যে সবচেয়ে বেশি প্রার্থীর সংখ্যা উপজেলার দক্ষিণভাগ উত্তর ইউপিতে। ওই ইউপিতে চেয়ারম্যান পদে ১০ জন প্রার্থী লড়ছেন। তাদের মধ্যে আওয়ামী লীগের প্রার্থীর বিরুদ্ধে ৪ জন (স্বতন্ত্র) বিদ্রোহী প্রার্থী হয়েছেন। এছাড়া স্বতন্ত্রের মোড়কে বিএনপির ১ জন ও জামায়াতের ১ জন প্রার্থী নির্বাচনী মাঠে রয়েছেন।

উপজেলা নির্বাচন কার্যালয় সূত্রে জানা গেছে, দক্ষিণভাগ উত্তর ইউপিতে চেয়ারম্যান পদে লড়ছেন আওয়ামী লীগের প্রার্থী এনাম উদ্দিন নৌকা, স্বতন্ত্র প্রার্থী (বিদ্রোহী আওয়ামী লীগ) মো. নজরুল ইসলাম ঢোল, আব্দুল জলিল ফুলু ঘোড়া, আশরাফ হোসেন মোটরসাইকেল, আব্দুল মানিক রজনীগন্ধা, মো. ময়নুল হক (বিএনপি) চশমা, লুৎফুর রহমান (জামায়াত) টেবিলফ্যান, জবরুল ইসলাম আনারস, মোশাহিদ আহমদ টেলিফোন ও আব্দুল মালিক অটোরিকশা।

এসব প্রার্থীরা কর্মী-সমর্থক নিয়ে প্রতিদিন নির্বাচনী মাঠ চষে বেড়াচ্ছেন। রাতদিন ছুটছেন ভোটারদের বাড়ি বাড়ি। তারা ভোট আদায়ের জন্য ভোটারদের উন্নয়নের নানা প্রতিশ্রæতি দিচ্ছেন। তবে ভোটাররা বলছেন, তারা সৎ, যোগ্য ও ভালো মানুষকে ভোট দেবেন।

মুহিবুর রহমান নামে এক ভোটার বলেন, আমাদের ইউপিতে চেয়ারম্যান পদে ১০ জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বীতা করছেন। যা অন্য ইউপির তুলনায় চেয়ে সবচেয়ে বেশি। তাদের মধ্যে যিনি সৎ ও ভালো মানুষ এবং আমাদের এলাকার উন্নয়নে কাজ করবেন; আমরা তাকেই ভোট দিয়ে চেয়ারম্যান নির্বাচিত করব।

আওয়ামী লীগের প্রার্থী বর্তমান চেয়ারম্যান এনাম উদ্দিন বলেন, গত পাঁচ বছরে আমি আমার ইউনিয়নের বিভিন্ন ওয়ার্ডে ব্যাপক উন্নয়ন করেছি। অনেক রাস্তা-ঘাট তৈরি করেছি। পাশাপাশি তিনটি বিদ্যালয় প্রতিষ্ঠা করেছি। এখনও অনেক কাজ চলমান রয়েছে। ভালো কাজ করেছি বলেই দল আমাকে মূল্যায়ন করে নৌকা প্রতীক দিয়েছে। এখন মানুষের দোয়া আর ভালোবাসা নিয়ে আবারও বিপুল ভোটে জয়ী হব বলে আশা করছি।

স্বতন্ত্র প্রার্থী (বিদ্রোহী আওয়ামী লীগ) সাবেক চেয়ারম্যান মো. নজরুল ইসলাম বলেন, আমি যখন চেয়ারম্যান ছিলাম তখন বিভিন্ন এলাকায় অনেক উন্নয়নমূলক কাজ করেছি। এজন্য মানুষ আমাকে মনে রেখেছেন। তাদের চাপে নির্বাচনে আবারও প্রার্থী হয়েছি। প্রচারণায় যেখানে যাচ্ছি সবার সাড়া পাচ্ছি। সুষ্ঠু ভোট হলে আমি জয়ী হব বলে আশা করছি।

স্বতন্ত্র প্রার্থী মো. ময়নুল হক (বিএনপি) বলেন, ইউনিয়নের বিভিন্ন ওয়ার্ডে এখনও অনেক সমস্যা আছে। আর মানুষজন পরিবর্তন চায়। অবাধ, সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ নির্বাচন হলে আমি জয়ী হব বলে আশা করছি।

সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, দক্ষিণভাগ উত্তর ইউনিয়নের নয়টি ওয়ার্ডে মোট ভোটার সংখ্যা ১২৭৭৩। এরমধ্যে ৬৩৬৮ জন পুরুষ এবং ৬৪০৫ নারী ভোটার রয়েছেন।