বুধবার, ১ ডিসেম্বর ২০২১ খ্রীষ্টাব্দ | ১৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৮ বঙ্গাব্দ



বড়লেখায় ভোটারদের দৃষ্টি কেড়েছেন সদস্য প্রার্থী রাসেল
মডেল ওয়ার্ড গঠনের প্রতিশ্রুতি রাসেলের

মডেল ওয়ার্ড গঠনের প্রতিশ্রুতি রাসেলের



বিজ্ঞাপন


নিজস্ব প্রতিবেদক:: তৃতীয় ধাপে ইউপি নির্বাচনে মৌলভীবাজারের বড়লেখা উপজেলার দক্ষিণভাগ দক্ষিণ ইউপির ৩ নম্বর ওয়ার্ডে সাধারণ (ইউপি) সদস্য পদে লড়ছেন ৩ জন প্রার্থী। তাদের মধ্যে সিলিং ফ্যান প্রতীকে নিয়ে মাঠে রয়েছেন আব্দুল হেকিম রাসেল।

রাসেল দীর্ঘদিন ধরে এলাকায় বিভিন্ন সমাজসেবামূলক কাজ করেছেন। যার কারণে এলাকার মানুষের কাছে তিনি জনপ্রিয়তা পেয়েছেন। তাই সবার সমর্থন নিয়ে তিনি প্রথমবারের মতো নির্বাচনে সাধারণ সদস্য পদে দাঁড়িয়েছেন।

নির্বাচনী মাঠে রাতদিন চষে বেড়াচ্ছেন রাসেল। যেখানে যাচ্ছেন; মানুষের ব্যাপক সাড়াও পাচ্ছেন বলে তিনি জানিয়েছেন। এরইমধ্যে তিনি ওয়ার্ডের ভোটারদের দৃষ্টি কেড়েছেন। নির্বাচন উপলক্ষে প্রার্থীরা যেখানে মাইকিং করে দিনরাত প্রচারণা চালিয়ে শব্দদূষণ করছেন; সেখানে ব্যতিক্রমী উদ্যোগ নিয়েছেন তিনি। এসএসসি পরীক্ষার্থীদের কথা চিন্তা করে তিনি মাইকে নির্বাচনী প্রচারণা বন্ধ রেখেছেন। রাসেল এমন উদ্যোগকে এলাকাবাসী সাধুবাদ জানিয়েছেন।

বুধবার বিকেলে এই প্রতিবেদকের সঙ্গে আলাপকালে আব্দুল হেকিম রাসেল বলেন, যেখানে যাচ্ছি, মানুষের ব্যাপক সমর্থন পাচ্ছি। আমি আশা করি, নির্বাচন অবাধ ও সুষ্ঠু হলে মানুষজনকে আমাকে ভোট দিয়ে জয়যুক্ত করবেন।

এসময় তিনি তার নানা পরিকল্পার কথা তুলে ধরে বলেন, নির্বাচিত হলে এলাকার মুরব্বি ও যুবসমাজকে নিয়ে একটি কমিটি গঠন করব। তাদের মতামত অনুাযায়ী এলাকার যে সমস্যাগুলো আছে সেগুলো চিহ্নিত করে সমাধানের উদ্যোগ নেব। ওয়ার্ডের বাসিন্দাদের নাগরিক সুবিধা নিশ্চিত করব। রাস্তা-ঘাট সংস্কার ও নির্মাণ করব। শিক্ষা, চিকিৎসা নিশ্চিতে আমার ভূমিকা থাকবে। যুবসমাজ যেন অবক্ষয়ের দিকে না যায় সে জন্য ভূমিকা রাখবো। সর্বোপরি ৩ নম্বর ওয়ার্ডকে একটি উন্নত ও মডেল ওয়ার্ড হিসেবে গড়ে তোলার জন্য আমি নিরলসভাবে কাজ করব। ওয়ার্ডবাসীর যে কোনো সুখে-দুঃখে সর্বদা পাশে থাকবো ইনশাআল্লাহ।

প্রসঙ্গত, তৃতীয় ধাপে ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে মৌলভীবাজারের বড়লেখা উপজেলার ১০ ইউপিতে ভোটগ্রহণ হবে ২৮ নভেম্বর। নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে ৪৪ জন ও সংরক্ষতি আসনে নারী সদস্য পদে ৯০ জন ও সাধারণ সদস্য পদে ৩৬১ জন প্রার্থী মাঠে প্রচারণা চালাচ্ছেন।