শুক্রবার, ২৩ জুলাই ২০২১ খ্রীষ্টাব্দ | ৮ শ্রাবণ ১৪২৮ বঙ্গাব্দ



বড়লেখায় ভাইস চেয়ারম্যানের উদ্যোগে বৃক্ষরোপণ



বিজ্ঞাপন

নিজস্ব প্রতিবেদক :: মৌলভীবাজারের বড়লেখা উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান ও দুর্বার মুক্ত স্কাউট দলের সভাপতি মুহাম্মদ তাজ উদ্দিন উপজেলার বিভিন্ন এলাকায় নানা প্রজাতির ৫০ হাজার গাছ লাগানোর উদ্যোগ নিয়েছেন। মূলত প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ‘বৃক্ষ রোপণ করব, সবুজ বাংলা গড়বো’ এই স্লোগানকে বাস্তবে রূপ দিতে তিনি এই কর্মসূচি হাতে নিয়েছেন। এরই মধ্যে ২০২০ সালে প্রায় ৫ হাজার বৃক্ষরোপণ করা হয়েছে। এই কর্মসূচি বাস্তবায়ন করছে সিলেট বন বিভাগের বড়লেখা রেঞ্জ। এতে সার্বিক সহযোগিতা করছে দুর্বার মুক্ত স্কাউট।

এরই ধারাবাহিকতায় গতকাল মঙ্গলবার (১৯ জুলাই) ধামাই নদীর পারে বৃক্ষ রোপণ করা হয়। এই নদীর পারে প্রায় ১৫ হাজার বৃক্ষ রোপন করা হবে। এ উপলক্ষে দুপুরে হরিবদী ব্রীজের ওপর বৃক্ষরোপণ অভিযান-২০২১ উদ্বোধন করা হয়। এতে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান সোয়েব আহমদ।

এতে উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান দুর্বার মুক্ত স্কাউট দলের সভাপতি মুহাম্মদ তাজ উদ্দিনের সভাপতিত্বে অন্যদের মধ্যে বক্তব্য দেন তালিমপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান বিদ্যুৎ কান্ত দাস, বন বিভাগের বড়লেখা রেঞ্জের সহযোগি রেঞ্জ কর্মকর্তা শেখর রঞ্জন দাস, দুর্বার মুক্ত স্কাউট দলের সাধারণ সম্পাদক কাঠালতলী উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক লুৎফুর রহমান চুন্নু, ইউনিলিডার আবির প্রমুখ।
উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান ও দুর্বার মুক্ত স্কাউট দলের সভাপতি মুহাম্মদ তাজ উদ্দিন বলেন, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশনা অনুযায়ী সবুজ বাংলা গড়ার লক্ষ্যে ও মাননীয় পরিবেশ মন্ত্রীর সম্মানে বড়লেখায় ৫০ হাজার বৃক্ষ রোপণের উদ্যোগ হাতে নিয়েছি। এই কর্মসূচি বাস্তবায়নে বনবিভাগের বড়লেখা রেঞ্জ এবং দুর্বার মুক্ত স্কাউট সার্বিক সহযোগিতা করছে।

তিনি আরও বলেন, পাঁচ বছরে মধ্যে উপজেলার বিভিন্ন এলাকায় এই ৫০ হাজার বৃক্ষ লাগানো হবে। এরইমধ্যে ২০২০ সালে বিভিন্ন এলাকায় প্রায় ৫ হাজার বৃক্ষরোপণ করা হয়েছে। নিয়মিত গাছগুলোর পরিচর্যাও করা হচ্ছে। এরই ধারাবিহকতায় গতকাল মঙ্গলবার (১৯ জুলাই) ধামাই নদীর পারে বৃক্ষ রোপণ করা হয়েছে। এই নদীর পারে প্রায় ১৫ হাজার বৃক্ষ রোপন করা হবে। ধারাবাহিকভাবে বিভিন্ন এলাকায় বাকি ৩০ হাজার গাছ লাগানো হবে।