শুক্রবার, ৯ ডিসেম্বর ২০২২ খ্রীষ্টাব্দ | ২৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ



৪ সপ্তাহের জন্য ছিটকে পড়লেন তামিম
খেলাধুলা ডেস্ক

খেলাধুলা ডেস্ক



বিজ্ঞাপন

বাঁ-হাতের দুটো আঙুলে চিড় ধরেছে। যে চিড় শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে প্রথম ম্যাচের পরই শেষ করে দিয়েছে তামিম ইকবালের এশিয়া কাপ। বাংলাদেশের বাঁ-হাতি ওপেনার এশিয়া কাপের আর কোনো ম্যাচে খেলছেন না এটা নিশ্চিত। সব কিছু ঠিকঠাক থাকলে দলকে আরব আমিরাতে রেখে আগামীকাল মঙ্গলবারই তামিম ফিরে আসবেন দেশে। তবে তামিমকে ঠিক কতদিন মাঠের বাইরে কাটাতে হবে, তা নিয়ে এক রকম ধোয়াশেই তৈরি হয়েছে। একেক সময় শোনা যাচ্ছে একেক রকম খবর। সর্বশেষ খবরটি অবশ্য বাংলাদেশের জন্য সুসংবাদই বয়ে এনেছে। তামিমকে মাঠের বাইরে কাটাতে হবে মাত্র ৪ সপ্তাহ।

শনিবার এশিয়া কাপের উদ্বোধনী ম্যাচেই শ্রীলঙ্কার মুখোমুখি হয় বাংলাদেশ। ম্যাচের দ্বিতীয় ওভারেই সুরঙ্গা লাকমালের একটি বাউন্সারে বাঁ-হাতে চোট পান তামিম। সঙ্গে সঙ্গেই মাঠ ছেড়ে তাকে ফিরে যেতে হয় ড্রেসিংরুমে। সেখান থেকে হাসপাতালে। সেখানে পরীক্ষার পর জানানো হয়, ৬ সপ্তাহ মাঠের বাইরে কাটাতে হবে তামিমকে। মানে তামিমের এশিয়া কাপ তখনই শেষ।

অবশ্য তার ঘণ্টা দুয়েক পরই অবিশ্বাস্য এক ঘটনার জন্ম দেন তামিম। দলের প্রয়োজনে এক হাতেই নেমে পড়েন ব্যাটিংয়ে। দুঃসাহসিক ওই কাণ্ডে সর্বমহলে প্রশংসিত হয়েছেন তামিম। চারদিকে চলছে তামিম বন্ধনার গান। সেই প্রশংসা, বীরত্বগাথা মাথায় নিয়েই তামিম ফিরে আসছেন দেশে।

প্রাথমিকভাবে ৬ সপ্তাহ মাঠে বাইরে কাটাতে হবে বলা হলেও পরে আসে আরও বড় দুঃসংবাদ। দলের পক্ষ থেকেই দাবি করা হয়, চোটের যা ধরন তাতে দুই থেকে তিন মাস বাইরে থাকতে হবে পারে তামিমকে। বিসিবির পক্ষ থেকে অবশ্য এখনো পর্যন্ত নিশ্চিত করে কিছু বলা হয়নি। তবে বাংলাদেশ দলের ম্যানেজার খালেদ মাহমুদ সুজন নিশ্চিত করেছেন, ৪ সপ্তাহ মাঠের বাইরে থাকতে হবে তামিমকে। এমনকি এর আগেও সেরে উঠতে পারেন তামিম।

সুজন এটাও যোগ করেছেন প্রথমে যতটা গুরুতর মনে করা হচ্ছিল, তামিমের চোট ততটা বিপদজনক নয়। অস্ত্রোপচার করতে হবে না। প্রাথমিক পরীক্ষার পর তামিম বিশেষজ্ঞ এক চিকিৎসকের স্মরণাপন্ন হন। তার কাছ থেকে রিপোর্ট পাওয়ার পরই জানা গেছে, এক মাসের মধ্যেই পুরোপুরি সেরে উঠবেন তামিম।

তবে বাংলাদেশ টিম ম্যানেজম্যান্ট কোনো রকম ঝুঁকি নিতে রাজি নয়। তাই পরীক্ষার রিপোর্ট অস্ট্রেলিয়া ও ইংল্যান্ডে বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকের কাছে পাঠানো হবে। সেখান থেকে পর্যালোচনা রিপোর্ট আসার পরই নেওয়া হবে পরবর্তী পদক্ষেপ। তামিম নিজেও জানিয়েছেন অস্ট্রেলিয়া ও ইংল্যান্ড থেকে পর্যালোচনা রিপোর্ট আসার পরই পরবর্তী সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে।