শনিবার, ২৬ নভেম্বর ২০২২ খ্রীষ্টাব্দ | ১২ অগ্রহায়ণ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ



মেসি নেই, উয়েফা বর্ষসেরার দৌড়ে রোনালদো-মড্রিচ-সালাহ
খেলাধুলা ডেস্ক

খেলাধুলা ডেস্ক



বিজ্ঞাপন

ফুটবলে ব্যক্তিগত পুরস্কার মানেই মেসি-রোনালদোর দ্বৈরথ। গত এক দশক ধরেই এটাই যেন নিয়ম হয়ে গিয়েছিল। গত ১০ বছরে বিশ্ব ফুটবলের সব ব্যক্তিগত বড় পুরস্কারই ভাগাভাগি করেছেন তারা দুজনে। কিন্তু এবার সেই নিয়মের ব্যত্যয় ঘটল। ২০১৮ সালের উয়েফা বর্ষসেরা খেলোয়াড়ের পুরস্কারের জন্য তিন জনের সংক্ষিপ্ত তালিকা ঘোষণা করা হয়েছে। কিন্ত ৩ জনের সেই তালিকায় লিওনেল মেসি নেই।

মেসি না থাকলেও ক্রিস্তিয়ানো রোনালদো ঠিকই আছে। পর্তুগিজ সুপারস্টারের সঙ্গে তালিকায় থাকা অন্য দুজন হলেন লুকা মড্রিচ ও মোহামেদ সালাহ। আগামী ৩০ আগস্ট এই ৩ জনের মধ্য থেকেই একজনের হাতে উঠবে উয়েফার বর্ষসেরা ফুটবলারের পুরস্কার। সেদিন আমার-আপনার মতো মেসিও থাকবেন স্রেফ দর্শক!

গত দুই বছরই এই পুরস্কারটা জিতেছেন রোনালদো। এবারও এই পর্তুগিজ তারকার হাতেই পুরস্কারটা উঠার সম্ভাবনা বেশি। কারণ, গত মৌসুমটিতে টানা ষষ্ঠ বারের মতো উয়েফা চ্যাম্পিয়ন্স লিগের সর্বোচ্চ গোলদাতা হয়েছেন তিনি। পাশাপাশি রিয়াল মাদ্রিদকে উপহার দিয়েছেন শিরোপা।

চ্যাম্পিয়ন্স লিগের পারফরম্যান্সের ভিত্তিতেই মূলত এই পুরস্কারটা দেওয়া হয়। ৩ জনের সংক্ষিপ্ত তালিকাতেও সেই ইঙ্গিতই। পুরস্কারের দৌড়ে থাকা ৩ জনই খেলেছেন গত মৌসুমের চ্যাম্পিয়ন্স লিগের ফাইনালে। রোনালদো এবং লুকা মড্রিচ, দুজনেই গত ২৬ মে কিয়েভের ফাইনালে খেলেছেন রিয়ালের জার্সি গায়ে। লিভারপুলের মিশরীয় ফরোয়ার্ড সালাহ খেলেছেন লিভারপুলের হয়ে। যদিও ফাইনালের শুরুতেই চোট পেয়ে মাঠ ছাড়েন তিনি।

তবে ক্লাব লিভারপুলের হয়ে গত মৌসুমটি দুর্দান্তই কেটেছে তার। সব ধরনের প্রতিযোগিতা মিলিয়ে করেন ৪৪ গোল। দীর্ঘদিন পর লিভারপুলকে ফাইনালে তুলতে সবচেয়ে বড় ভূমিকা ছিল তার। ফলে প্রথম বারের মতো পুরস্কারটা উঠতে পারে তার হাতেও।

রোনালদো-সালাহ, দুজনেই হতাশা করে উয়েফার সেরার মুকুট উঠতে পারে মড্রিচের মাথায়ও। রিয়াল মাদ্রিদকে টানা তৃতীয় বারের মতো চ্যাম্পিয়ন করতে এই ক্রোয়েশিয়ান মিডফিল্ডার রেখেছেন গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা। পরে ক্রোয়েশিয়া জাতীয় দলের হয়েও মাতিয়েছেন বিশ্বকাপ। হয়েছেন বিশ্বকাপের সেরা খেলোয়াড়।

৩ জনই হয়তো স্বপ্নে বিভোর। তবে ৩ জনের মধ্যে শেষ হাসিটা হাসেন কে, সেটা জানা যাবে ৩০ আগস্ট রাতেই। আর মাত্র কয়টা দিনই তো বাকি।