শনিবার, ২৭ ফেব্রুয়ারী ২০২১ খ্রীষ্টাব্দ | ১৫ ফাল্গুন ১৪২৭ বঙ্গাব্দ



মৌলভীবাজারে মাথা গোঁজার ঠাঁই হচ্ছে ১১২৬ পরিবারের



বিজ্ঞাপন

নিউজ ডেস্ক: মুজিববর্ষ উপলক্ষে মৌলভীবাজারে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার উপহারের ১১২৬ টি সেমিপাকা ঘর প্রস্তুত করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার (২১ জানুয়ারি) দুপুরে, এ বিষয়ে মৌলভীবাজারের জেলা প্রশাসক মীর নাহিদ আহসান এক সংবাদ সম্মেলনে বলেন, খাস জমি দখলমুক্ত করে প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনায় প্রথম পর্যায়ে ১১শ’ ২৬টি সেমিপাকা ঘর নির্মাণ করা হয়েছে।

প্রতিটি ঘর নির্মাণ ও হস্তান্তর পর্যন্ত খরচ হবে ১ লাখ ৭৩ হাজার ২৫০টাকা। সেমিপাকা ঘরের সঙ্গে একটি ভূমি ও গৃহহীন পরিবার ২ শতক জমিও পাবেন। জমিসহ ঘর হস্তান্তরের সকল প্রক্রিয়া সম্পন্ন করা হয়েছে। ২৩ জানুয়ারি শনিবার প্রধানমন্ত্রী ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে দেশব্যাপী এ প্রকল্পের উদ্বোধন করবেন।


মৌলভীবাজার জেলায় এই তারিখে ৫৪২টি ঘর হস্তান্তর করা হবে এবং ফেব্রুয়ারির প্রথম সপ্তাহে নির্মাণাধীন অন্য ঘরসহ জমি উপকারভোগী পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হবে। এসময় জেলা প্রশাসক আরো জানান, মৌলভীবাজারে সাতটি উপজেলায় তৈরি হয়েছে সারি সারি লাল টিনের ছাউনিতে গড়া একতলা সেমিপাকা ঘর। অসহায় ও ভূমিহীন মানুষের জন্যই সরকারের মুজিববর্ষের অঙ্গিকার এর বাস্তব রুপায়নে এখানেই গড়ে উঠেছে স্বপ্নের রঙে আঁকা ঘরগুলি। আশ্রয়হীন মানুষের স্বপ্নের ঠিকানা ২০ ফুট বাই ২২ ফুট প্রস্থের ঘরে রয়েছে দু’টি কক্ষ, একটি রান্নাঘর, টয়লেট ও সামনে খোলা বারান্দা। ‘আশ্রয়ণের অধিকার, শেখ হাসিনার উপহার’ স্লোগানে সাড়া দিয়ে জেলার প্রতিটি ভূমিহীন ও ঘরহীন পরিবারের জন্য থাকছে দ্বিকক্ষ বিশিষ্ট আধুনিক সুযোগ সুবিধা সম্বলিত এসব ঘর।

জেলার বড়লেখায় ৫০টি, জুড়ীতে ৭টি, কুলাউড়াঙ ১১০টি, রাজনগরে ৯৮টি, কমলগঞ্জে ৮৫টি, শ্রীমঙ্গলে ৩০০টি ও সদর উপজেলায় ৪৭৬টি ঘর সরকারের খাস জমিতে নির্মাণ করা হয়েছে।

সংবাদ সম্মেলনে অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) মামুনুর রশীদ, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব) মল্লিকা দে, সদর। উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা শরিফুল ইসলামসহ জেলায় কর্মরত সাংবাদিক বৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।