শনিবার, ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২০ খ্রীষ্টাব্দ | ১১ আশ্বিন ১৪২৭ বঙ্গাব্দ



শাহবাজপুর-মুড়িয়ার সোনাই তীরে ‘সাপ্তাহিক হাট’ চালু

নিজস্ব প্রতিবেদক




ছবি: ফেসবুক থেকে সংগৃহীত

মৌলভীবাজারের বড়লেখা এবং সিলেটের বিয়ানীবাজার উপজেলার সংযোগস্থল আতুয়া-নয়াগ্রাম সেতু সংলগ্ন সোনাই নদীর তীরে ‘সোনাই নওয়া বাজার’ নামে একটি ‘সাপ্তাহিক হাট’ চালু হয়েছে। আজ সোমবার (১০ আগস্ট) বিকেলে হাটে বেচাকেনা শুরু হয়।

স্থানীয়রা জানিয়েছেন, সপ্তাহের সোমবার ও বৃহস্পতিবার এখানে হাট বসবে। এছাড়া অন্যান্য দিন বিকেলে সাধারণ নিত্যপ্রয়োজনীয় জিনিসের দোকানও বসবে।


স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, বড়লেখা উপজেলার উত্তর শাহবাজপুর ও বিয়ানীবাজার উপজেলার মুড়িয়া ইউনিয়নের মানুষের মধ্যে সম্প্রীতি ও সৌহার্দ্যপূর্ণ অবস্থান ধরে রাখতে একটি সাপ্তাহিক হাট স্থাপনের উদ্যোগ গ্রহণ করা হয়। এরই পরিপ্রেক্ষিতে গত শুক্রবার (৭ আগস্ট) বিকেলে বড়লেখা উপজেলার উত্তর শাহবাজপুর ইউনিয়নের আতুয়া এবং বিয়ানীবাজার উপজেলার মুড়িয়া ইউনিয়নের নয়াগ্রাম এলাকার বাসিন্দাদের মধ্যে এক সভা অনুষ্ঠিত হয়। সভায় বড়লেখা এবং বিয়ানীবাজার উপজেলার সংযোগস্থল আতুয়া-নয়াগ্রাম সেতু সংলগ্ন সোনাই নদীর দক্ষিণ তীরে সাপ্তাহিক হাট বসানোর সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। হাটবাজারের জন্য ভূমি দান করেন আব্দুর রহমান লুকুছ। এরই প্রেক্ষিতে বাজার ব্যবস্থাপনা কমিটি ও উপদেষ্টা পরিষদ গঠন করা হয়। পরে বাজারের নামকরণ ‘সোনাই নওয়া বাজার’ করা হয়।

এ বিষয়ে বাজার ব্যবস্থাপনা কমিটির সাধারণ সম্পাদক ও মুড়িয়া ইউনিয়নের বাসিন্দা সেলিম উদ্দিন আহমদ বলেন, ‘শাহবাজপুর ও মুড়িয়া ইউনিয়নের লোকজন মিলে আমরা সোনাই নদীর দক্ষিণ তীরে সাপ্তাহিক একটি হাট বসানোর উদ্যোগ নিয়েছি। আজ (সোমবার) থেকে হাটে কৃষিপণ্য বেচাকেনা শুরু হয়েছে। পরে আনুষ্ঠানিকভাবে এটির উদ্বোধন হবে। সোনাই নওয়া বাজারকে ঘিরে দুই উপজেলার মানুষের মধ্যে সম্প্রীতি ও সৌহার্দ্যপূর্ণ অবস্থান আরও সুদৃঢ় হবে। পাশাপাশি উভয় এলাকার মানুষ অর্থনৈতিকভাবেও লাভবান হবেন।’

উত্তর শাহবাজপুর ইউনিয়নের বাসিন্দা আওয়ামী লীগ নেতা রফিক উদ্দিন আহমদ বলেন, ‘সম্প্রীতির বন্ধন সুদৃঢ় করতে এই বাজার ভূমিকা রাখবে। আতুয়া-নয়াগ্রাম সেতু নির্মাণের পেছনে মূলত যোগাযোগ বৃদ্ধিকল্পে ব্যবসার প্রসার ঘটানোই ছিল আসল উদ্দেশ্য। এই উদ্দেশ্য সফল হয়েছে।’


এ ব্যাপারে বড়লেখা উপজেলার উত্তর শাহবাজপুর ইউনিয়ন পরিষদের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান সেলিম আহমদ খান বলেন, ‘সোনাই নওয়া বাজারটি চালু হওয়ায় উত্তর শাহবাজপুর ইউনিয়নের এবং মুড়িয়া ইউনিয়নের বেশ কয়েকটি গ্রামের মানুষ বেশি উপকৃত হয়েছেন। স্থানীয় লোকজন সহজে হাট থেকে নিত্যপ্রয়োজনীয় জিনিস কিনতে পারবেন। এছাড়া সবচেয়ে বেশি অর্থনৈতিকভাবে লাভবান হবেন স্থানীয়রা কৃষকরা। তারা সহজে বাজারে কৃষিপণ্য কেনাবেচা করতে পারবেন।’