রবিবার, ২০ সেপ্টেম্বর ২০২০ খ্রীষ্টাব্দ | ৫ আশ্বিন ১৪২৭ বঙ্গাব্দ



Sex Cams

গোলাপগঞ্জে জাতীয় শুদ্ধাচার কৌশল সহায়ক বিষয়ক কার্যক্রম শুরু

নিজস্ব প্রতিবেদক, গোলাপগঞ্জ ::




মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের অতিরিক্ত সচিব সুলতান আহমদ বলেছেন, ব্যক্তি শুদ্ধির মাধ্যমে সমাজকে শুদ্ধি করতে হবে। ব্যক্তি ও সমাজ শুদ্ধির মাধ্যমে রাষ্ট্রের শুদ্ধি সম্ভব। ব্যক্তি ও সমাজের মাধ্যমেই রাষ্ট্রীয় পর্যায়ে শুদ্ধাচার কার্যক্রমের সফলতা অর্জিত হবে। জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান সোনার বাংলা গড়ার লক্ষ্যে এদেশ স্বাধীন করেছিলেন। তাইতো রাষ্ট্রের সর্বক্ষেত্রে শুদ্ধাচার নীতি বাস্তবায়নের মাধ্যমে তার স্বপ্নকে পূরণ করতে হবে।


বৃহস্পতিবার (১৩ ফেব্রুয়ারি) সকাল ১০টায় গোলাপগঞ্জ উপজেলা সম্মেলন কক্ষে জাতীয় শুদ্ধাচার কৌশল সহায়তা প্রকল্প (এন.আই.এস-২) এর উদ্যোগে ও জাপানি উন্নয়ন সংস্থা জাইকার সহায়তায় এক কর্মশালায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন।

দেশের ৮টি উপজেলায় জাতীয় শুদ্ধাচার কৌশল সহায়ক বিষয়ক কার্যক্রম শুরু হয়েছে বলে তিনি উল্লেখ করে বলেন, গোলাপগঞ্জবাসী সৌভাগ্যবান এর মধ্যে গোলাপগঞ্জের নাম অন্তর্ভুক্ত রয়েছে।

শুদ্ধাচার বিষয়ক কার্যক্রম গোলাপগঞ্জে গুরুত্ব সহকারে পরিচালনা করার জন্য সংশ্লিষ্টদের প্রতি নির্দেশনা দিয়ে বলেন, আইন প্রয়োগ করে ব্যক্তি সংশোধন করা কঠিন কাজ, মানুষের মধ্যে নৈতিকতাবোধ জাগ্রত হলে শুদ্ধাচার কার্যক্রম সর্বক্ষেত্রে প্রতিষ্ঠিত হবে।

তিনি আরও বলেন, আমাদের দৈনন্দিন জীবনে বিভিন্ন ক্ষেত্রে অনেকেই অহেতুক মিথ্যার আশ্রয় নিয়ে থাকি। মিথ্যা হচ্ছে সব অপরাধের মূল, মিথ্যা প্রতিষ্ঠা করতে গিয়ে যুদ্ধ, মারামারি, হানাহানি, কলহের সৃষ্টি হয়। আমাদেরকে মিথ্যার মত জঘন্য অপরাধ থেকে অবশ্যই দুরে থাকতে হবে। শুদ্ধাচারের বিষয়টি মানস পটে জন্ম লাভ করলে তা সমাজ, রাষ্ট্রসহ সর্বক্ষেত্রে সুফল বয়ে আনবে।

ব্যক্তি ও সমাজ জীবনে প্রত্যেকেই নিজ নিজ হৃদয়কে শুদ্ধ করে প্রতিটি কাজে ও আচার আচরণে তা বাস্তবে পরিণত করলে বাংলাদেশ সোনার বাংলায় পরিণত হবে বলে তিনি আশাবাদ ব্যক্ত করেন।


সিলেটের জেলা প্রশাসক এম কাজী এমদাদুল ইসলামের সভাপতিত্বে ও গোলাপগঞ্জ উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) শবনম শারমিনের পরিচালনায় অনুষ্ঠিত কর্মশালায় বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের সিনিয়র সহকারী সচিব নাহিদা সুলতানা, প্রকল্পের জাতীয় পরামর্শক শফিউল আলম।

স্বাগত বক্তব্য রাখেন গোলাপগঞ্জের উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মামুনুর রহমান।

অন্যান্যদের মধ্যে আলোচনায় অংশ নেন, গোলাপগঞ্জ উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান এডভোকেট ইকবাল আহমদ চৌধুরী, ভাইস চেয়ারম্যান মনসুর আহমদ, সিলেট পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি-১ এর সভাপতি ও গোলাপগঞ্জ প্রেসক্লাব সভাপতি আব্দুল আহাদ, উপজেলা প্রকৌশলী মাহমুদুল হাসান, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক রফিক আহমদ, উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা অজিভিৎ কুমার পাল, উপজেলা ক্রীড়া সংস্থার সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ মিছবাহ উদ্দিন, দুর্নীতি প্রতিরোধ কমিটির সভাপতি এনাম আহমদ চৌধুরী, স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডা. শাহিনুল ইসলাম, উপজেলা মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তা খাদিজা খাতুন, রণকেলী বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় ও কলেজ পরিচালনা কমিটির সভাপতি মিজানুর রহমান চৌধুরী রিংকু, গোলাপগঞ্জ সদর ইউপি চেয়ারম্যান আশফাক আহমদ চৌধুরী, লক্ষীপাশা ইউপি চেয়ারম্যান কবির আহমদ মোশন, আমুড়া ইউপি চেয়ারম্যান রুহেল আহমদ প্রমুখ।