বুধবার, ১৩ নভেম্বর ২০১৯ খ্রীষ্টাব্দ | ২৯ কার্তিক ১৪২৬ বঙ্গাব্দ




সিলেটে প্রতি শুক্রবার সুরমা নদীর তীর পরিষ্কার করবে শিক্ষার্থীরা

বিশেষ প্রতিবেদক




সিলেটে সুরমা নদীর দুই তীর এবং নগরের চাঁদনিঘাট এলাকায় ২ ঘণ্টাব্যাপী পরিষ্কার পরিচ্ছন্নতা কার্যক্রম চালিয়েছেন স্কুল-কলেজের প্রায় তিন শতাধিক শিক্ষার্থী। শুক্রবার বিকেলে স্বেচ্ছায় এ পরিষ্কার পরিচ্ছন্নতা কার্যক্রম চালায় শিক্ষার্থীরা।


সিলেটের সর্বস্তরের প্রতিভাবান এবং মেধাবী তরুণদের সম্মিলিত উদ্যোগে ‘ক্লিন সুরমা গ্রিন সিলেট’ নামের একটি সম্ভাবনাময় প্রকল্প হাতে নেয়া হয়েছে। ক্বিন ব্রিজ এলাকার সুরমা নদীর দুই পাড় পরিচ্ছন্ন করা এবং সৌন্দর্য বর্ধন করে একটি দৃষ্টিনন্দন এবং মনোরম পরিবেশ গড়ে তোলায় এ প্রকল্পের লক্ষ্য।

Sylhet-Surma-River

সিলেটের প্রায় ৩০টির অধিক সামাজিক সংগঠন ও বিভিন্ন পেশাজীবী সংগঠনসহ বিভিন্ন স্কুলকলেজ বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা মিলে এ উদ্যোগ গ্রহণ করেছে। শুক্রবার বিকেলে সিলেট সিটি কর্পোরেশন আঙিনা থেকে প্রায় তিন শতাধিক মানুষকে নিয়ে একটি বর্ণাঢ্য র‍্যালি ক্বিন ব্রিজ অভিমুখে যাত্রা শুরুর মাধ্যমে প্রকল্পের উদ্বোধন ঘোষণা করা হয়।


তাহিয়া তালবিয়া মীমের সঞ্চালনার মাধ্যমে দীর্ঘ মেয়াদী এ প্রকল্পের উদ্বোধন করেন সিলেট সিটি কর্পোরেশনের মেয়র আরিফুল হক চৌধুরী।

Sylhet-Surma-River

মেয়র বলেন, সিলেটের তরুণ যুব সমাজের সবাই মিলে যে উদ্যোগটি নিয়েছে, তা নিঃসন্দেহে প্রশংসনীয়। সিলেট সিটি কর্পোরেশন তাদেরকে সর্বোচ্চ রকমের সহযোগিতা করে পাশে থাকবে সব সময়। আমরা সর্বস্তরের সিলেটবাসী মিলে আমাদের ঐতিহ্যবাহী এ নগরকে একটি পরিচ্ছন্ন নগর হিসেবে বিশ্বের দরবারে তুলে ধরবো।

Sylhet-Surma-River

বিশেষ অতিথির বক্তব্য দেন সিলেট সিটি কর্পোরেশনের প্রধান স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডা. মো. জাহিদুল ইসলাম এবং বিশিষ্ট সমাজসেবী সাইকা চৌধুরী।

আরও পড়ুন: ছেলের জীবন বাঁচাতে নিজের কিডনি দিলেন বড়লেখার এক ‘মা’!

কিন ব্রিজের দুই ধারের অপরিচ্ছন্ন জায়গাগুলোকে পরিষ্কার করার মাধ্যমে আজকে থেকে আনুষ্ঠানিকভাবে এ প্রকল্পের কাজ শুরু হলো।

Sylhet-Surma-River

প্রকল্পটি সম্পর্কে প্রকল্পের অন্যতম মুখপাত্র ইফতি সিদ্দিকি জানান, ঐতিহ্যবাহী কিন ব্রিজের নিচে সুরমা নদীর দুই পাশ দিন দিন তার সৌন্দর্য হারাচ্ছে। আমরাই অসাধারণ এ জায়গাটিকে ধ্বংস করে দিচ্ছি। অথচ এ জায়গাটি হতে পারতো একটি মনোমুগ্ধকর টুরিস্ট স্পট। এসব চিন্তা করে আমরা সিলেটের সর্বস্তরের যুবসমাজ দল মত নির্বিশেষে অরাজনৈতিক ভাবে ঐক্যবদ্ধ হয়েছি ঐতিহ্যবাহী এ স্থানের সৌন্দর্য্য বর্ধনে। সিলেটকে একটি পরিচ্ছন্ন নগর হিসেবে বিশ্বের দরবারে তুলে ধরতে চাই। প্রতি শুক্রবার সকাল ৮টায় আমরা এর পরিচ্ছন্নতা অভিযান চালাবো। আমাদের এ প্রজেক্টটি সফল হতে যত বছরই লাগুক না কেন, আমরা এটি অব্যাহত রাখবো।


error: Content is protected !!