বুধবার, ১৬ অক্টোবর ২০১৯ খ্রীষ্টাব্দ | ১ কার্তিক ১৪২৬ বঙ্গাব্দ





ভোট লুট হলে রক্তবন্যা বয়ে দেওয়ার হুঁশিয়ারি বিরোধীদের

নিউজ ডেস্ক




ভোট গণনার দিন ভোটিং মেশিনে জালিয়াতির চেষ্টা করলে পরিণাম ভালো হবে না বলে ক্ষমতাসীন বিজেপি ও তাদের জোটগত মিত্রদের সতর্ক করেছেন রাষ্ট্রীয় লোক সমতা পার্টির (আরএলএসপি) নেতা উপেন্দ্র কুশওয়াহা। এ ধরনের কিছু ঘটলে সহিংস প্রতিশোধ নেওয়ার হুঁশিয়ারি দিয়েছেন তিনি। বলেছেন, ভোট লুট হলে রাস্তায় রক্তের বন্যা বইয়ে দেবে জনগণ।

সাত দফায় অনুষ্ঠিত লোকসভা নির্বাচনের ভোটগ্রহণ শেষ হয়েছে ১৯ মে। আগামী ২৩ মে ঘোষণা করা হবে ফল। ১৪টি বুথ ফেরত জরিপের মধ্যে ১২টি-ই আভাস দিয়েছে আবারও বিপুল সংখ্যাগরিষ্ঠতা নিয়ে সরকার গড়তে চলেছে বিজেপি নেতৃত্বাধীন এনডিএ জোট। জরিপগুলোতে ওই জোটের ২৮২ থেকে ৩৬৫টি পর্যন্ত আসন পাওয়ার আভাস মিলেছে। ভোট গণনার দিনকে সামনে রেখে অভিযোগ উঠেছে, উত্তর প্রদেশ, বিহার, পাঞ্জাব ও হরিয়ানায় অজ্ঞাত পরিচয় ব্যক্তিরা ভোটিং মেশিন সরিয়ে নেওয়ার চেষ্টা করছে।‌

মঙ্গলবার (২১ মে) এ নিয়ে পাটনায় মহাজোটবন্ধন একটি সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করে। সেখানে বক্তব্য রাখেন আরএলএসপি নেতা উপেন্দ্র। একসময় নরেন্দ্র মোদির নেতৃত্বাধীন বিজেপি সরকারের কেন্দ্রীয় মন্ত্রী হিসেবে দায়িত্ব পালনকারী এ নেতা বর্তমানে বিহারে বিরোধীদের জোট মহাজোটবন্ধনের অংশ। মঙ্গলবার সংবাদ সম্মেলনে তিনি বলেন, ‘ইভিএম সরিয়ে নেওয়ার চেষ্টার সময় কিছু গাড়ি ধরা পড়েছে। তবে এ সম্পর্কে কর্তৃপক্ষের কাছ থেকে কোনও ব্যাখ্যা পাওয়া যায়নি। এ ধরনের ঘটনায় জনগণ বিরক্ত হচ্ছে। তারা শান্ত থাকবে না। মহাজোটবন্ধনের নেতারাও বসে থাকবে না।’ উপেন্দ্র হুঁশিয়ার করে বলেন, বিজেপি নেতৃত্বাধীন এনডিএ জোট ভোট লুট করার চেষ্টা করলে জনগণ ভীষণ ক্ষুব্ধ হয়ে উঠবে ও রাস্তায় রক্তের বন্যা বয়ে যাবে।

বিহারের বুথ ফেরত সমীক্ষার গড় করলে দেখা যাচ্ছে ৪০ টি আসনের মধ্যে এনডিএ পেতে পারে ৩০ টি আসন। বুথফেরত জরিপের আভাসকেও নাকচ করে দিয়েছেন তিনি। তার দাবি, রাজ্যের বেশিরভাগ আসন তারাই জিতবেন। সংবাদ সম্মেলনে উপেন্দ্রর পাশাপাশি আরজেডির রাজ্য সভাপতি রামচন্দ্র পূর্ভে, রাজ্য কংগ্রেস সভাপতি মদনমোহন ঝাঁ ও জোটের অন্য নেতারা উপস্থিত ছিলেন।

error: Content is protected !!